• শনিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৭, ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৪
  • ||
  • আর্কাইভ

ঢাকা কলেজ সাংবাদিক সমিতির আহ্বায়ক কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা

প্রকাশ:  ১১ নভেম্বর ২০১৭, ২১:৫৩
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

বৃহস্পতিবার রাতে রাজধানীর কারওয়ান বাজারে থেকে ঢাকা কলেজ সাংবাদিক সমিতির একপক্ষ মিলে যে আহ্বায়ক কমিটির ঘোষণা দিয়েছে তা বিলুপ্ত ঘোষণা করেছে সামিতির সাধারণ সম্পাদকসহ কমিটির অন্যান্য নেতৃবৃন্দ। 

এর আগে গত ৯ নভেম্বর ঢাকা কলেজ সাংবাদিক সমিতির পাঁচ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়। এতে একাত্তর টিভির আরেফিন শাকিলকে আহ্বায়ক ও বাংলা ট্রিবিউনের আদিত্য রিমনকে সদস্য সচিব করা হয়েছে।

ওই কমিটি গঠনের দুদিন পর শনিবার সকাল ১১টায় কলেজ ক্যাম্পাসের শহীদ মিনারে আয়োজিত এক সভা থেকে সদ্য ঘোষিত ওই আহ্বায়ক কমিটিকে অবৈধ দাবি করে তা বাতিল বলে ঘোষণা করেছে সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক সমর্থিত অপর পক্ষ। সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্যের মতামতের ভিত্তেতে সদ্য ঘোষিত ওই আহ্বায়ক কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

সমিতির সাধারণ সম্পাদকসহ কমিটির নেতৃবৃন্দ স্বাক্ষরিত এক যৌথ সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, গত ৯নভেম্বর গভীর রাতে রাজধানীর কারওয়ান বাজারের একটি চায়ের দোকানে নিয়ম বর্হিভূত ভাবে ঢাকা কলেজ সংবাদিক সমিতির তথাকথিত আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে। যা সংগঠনের মূল সংবিধান এবং কলেজ প্রশাসনের সাথে সম্পূর্ণ সাংঘর্ষিক। 

কলেজ ক্যাম্পাসে না হওয়া, সদস্যদের জন্য কোন পূর্ব নোটিশ না দেয়া এবং প্রশাসন ও সমিতির সাধারণ সম্পাদককে না জানিয়ে ওই আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করার অভিযোগ তুলে তা প্রত্যাখান করেছেন সমিতির সাধারণ সম্পাদকসহ অধিকাংশ নেতাকর্মীরা।

এ বিষয়ে সমিতির সাধারণ সম্পাদক আল ইমরান বলেন, বর্তমান কার্যনির্বাহী কমিটি ২০ সদস্য বিশিষ্ট। এই সদস্যদের মধ্যে ১৬ জন অনুপস্থিত ছিল। তাছাড়া এটা যেহেতু কলেজ ক্যাম্পাস ভিত্তিক সংগঠন তাহলে কেন গভীর রাতে কারওয়ান বাজারের একটি চায়ের দোকানে বসে আহ্বায়ক কমিটি দেয়া হবে? তাই আমরা সকল দিক বিবেচনা করে সবার সম্মতিক্রমে আজকে ওই তথাকথিত আহ্বায়ক কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেছি।

সদ্য ঘোষিত আহ্বায়ক কমিটি বাতিল করার পরে এক প্রতিক্রিয়ায় সংগঠনটির সিনিয়র সহ-সভাপতি দেলোয়ার হোসেন বলেন, ‘প্রথমে বলবো, সাংগঠনিক কোন নিয়ম মেনে এ আহ্বায়ক কমিটি করা হয়নি। যেহেতু একটি পূর্ণাঙ্গ কমিটি আছে সেহেতু আহ্বায়ক কমিটি কেন? আজ দুঃখের সাথে বলতে হয় একটি ঐতিহ্যবাহী প্রতিষ্ঠানের কমিটি কেন রাস্তায় বসে হবে? তাই আমরা সংখ্যা গরিষ্ঠ সদস্যের মতে তথাকথিত এই আহ্বায়ক কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করেছি।’

close