• সোমবার, ১৬ জুলাই ২০১৮, ১ শ্রাবণ ১৪২৫
  • ||

আন্তর্জাতিক তারুণ্যের চলচ্চিত্র উৎসব জানুয়ারিতে

প্রকাশ:  ০২ জানুয়ারি ২০১৮, ১৫:১৯
বিনোদন ডেস্ক
প্রিন্ট

আন্তর্জাতিক তারুণ্যের চলচ্চিত্র উৎসব ‘লেটস্ সিনেমা’ স্লোগান নিয়ে জানুয়ারিতে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। চলচ্চিত্র সংসদ ‘সিনেমা বাংলাদেশ’ ও সামাজিক সংগঠন ‘শূন্য’র উদ্যোগে ১০ থেকে ১২ জানুয়ারি এই উৎসব অনুষ্ঠিত হবে লক্ষ্মীপুরে।

আয়োজকেরা জানান, উৎসবে ৬ টি ক্যাটাগরিতে বিশ্বের ১০২ টি দেশের মোট ২০৪৭ টি চলচ্চিত্র জমা পড়ে। বেস্ট অব দ্য ফেস্ট বিভাগে ৩৬৬ টি, শর্ট ফিল্ম বিভাগে ১১৩০ টি, ইন্টারন্যাশনাল শর্ট বিভাগে ৯৮৪টি , ডকুমেন্টারি বিভাগে ২৭২টি, এ্যানিমেশন বিভাগে ৪০৩টি ও লোকাল ট্যালেন্ট বিভাগে ৬৯ টি।

উৎসবে দেশ-বিদেশের প্রায় অর্ধশতাধিক তরুণ চলচ্চিত্র নির্মাতার চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে এবং বেশিরভাগ নির্মাতাই উপস্থিত থাকবেন বলে আশা করছেন আয়োজকেরা ।

উৎসবের অন্যতম আকর্ষণীয় দিক হলো, বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের নির্মাতাদের সাথে তিনটি দিন বাংলাদেশী তরুণ নির্মাতারা নিজেদের ভাবনাচিন্তা-অভিজ্ঞতা বিনিময়ের সুযোগ পাবে, একসাথে কর্মশালায় অংশ নেবে, বিশ্ব চলচ্চিত্রের নানা দিক সম্পর্কে জানতে পারবে।

উৎসব পরিচালক জিসান মাহাদি বলেন, “সব আয়োজনই আসলে ঢাকাকেন্দ্রিক হয়ে গেছে। যে কারণে আমরা এই আয়োজনের মধ্য দিয়ে ঢাকার বাইরের তরুণদের উৎসাহিত করতে চাই। লক্ষ্মীপুরের মতো শহরেও যে আন্তর্জাতিক মানের চলচ্চিত্র উৎসব আয়োজন করা সম্ভব, সেটাই আমরা প্রমাণ করতে চাই এই আয়োজনের মধ্য দিয়ে।”

দেশসেরা চলচ্চিত্র ব্যাক্তিত্বদের নিয়ে গঠিত একটি জুরিবোর্ডের মাধ্যমে ছয়টি ক্যাটাগরিতে সেরা চলচ্চিত্রগুলো পুরস্কার পাবে। উৎসবের সমাপনী ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানটি হবে ১২ জানুয়ারি সন্ধ্যায়, টাউন হল মিলনায়তনে। অনুষ্ঠানে প্রতিযোগিতা বিভাগে অংশ নেওয়া চলচ্চিত্রগুলোর মধ্যে পুরস্কারপ্রাপ্ত চলচ্চিত্রগুলোর নাম ঘোষণা ও পুরস্কার দেওয়া হবে।

চলচ্চিত্রের মধ্য দিয়ে বিশ্বকে দেখার সুযোগ আছে এ উৎসবে, বলেন উৎসব সমন্বয়ক ইয়াসিন চৌধুরী তুষার। তিনি আরো যুক্ত করেন, “আমরা সারাবিশ্ব থেকে কল্পনাতীত সাড়া পেয়েছি। এতদেশের এত এত ছবি জমা পড়বে, আমরা সত্যিই আশা করিনি। তবে জানিয়ে রাখতে চাই, কোন ছবির প্রতিই অবিচার হবার সুযোগ নেই। কারণ অমিতাভ রেজা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিভি ও চলচ্চিত্র বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান শফিউল আলম ভূইয়ার মতো বিচারকেরা সেরা ছবিগুলো নির্ধারণ করবেন। সারপ্রাইজ হিসেবে বাকী বিচারকদের নাম এখনই ঘোষণা করছি না।”

একনজরে গ্লোবাল ইয়ূথ ফিল্ম ফেস্টিভাল, লক্ষ্মীপুর ২০১৮

অংশগ্রহণকারি দেশ: ১০২ টি

অংশগ্রহণকারি মোট চলচ্চিত্র: ২০৪৮ টি

বাংলাদেশি চলচ্চিত্র: ৬৯ টি

প্রদর্শিত হবে: নির্বাচিত ৬৬ টি চলচ্চিত্র

পুরস্কার: ৫টি ক্যাটাগরিতে মোট ৭টি

আয়োজক: ‘সিনেমা বাংলাদেশ’ ও ‘শূন্য’

উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন বরেণ্য সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদার। উপস্থিত থাকবেন লেখক ও গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব তুষার আবদুল্লাহসহ চলচ্চিত্রসংশ্লিষ্ট খ্যাতনামা ব্যক্তিবর্গ।

উৎসবের বিচারক হিসেবে আছেন স্বনামধন্য নির্মাতা অমিতাভ রেজা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টেলিভিশন, চলচ্চিত্র ও ফটোগ্রাফি বিভাগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. এ জে এম শফিউল আলম ভূইয়া, অভিনেত্রী-নির্মাতা রোকেয়া প্রাচী প্রমুখ।

এছাড়া দেশি-বিদেশি ৫০ জন তরুণ নির্মাতার অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হবে একটি কর্মশালা।

/এটিএম ইমু