• শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭, -৩ পৌষ ১৪২৪
  • ||
  • আর্কাইভ

অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ

আইএইচটিতে ছাত্রীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলা

প্রকাশ:  ০৬ ডিসেম্বর ২০১৭, ১৫:৪৪ | আপডেট : ০৬ ডিসেম্বর ২০১৭, ১৯:১৮
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

রাজশাহী ইনস্টিটিউট অব হেলথ টেকনোলজিতে (আইএইচটি) ছাত্রীদের ওপর ছাত্রলীগের করা হামলার ঘটনায় বুধবার অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্যাম্পাস বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। বেলা একটার মধ্যে ছাত্রদের এবং বেলা তিনটার মধ্যে ছাত্রীদের হল খালি করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

জানা যায়, ৩ ডিসেম্বর ক্যাম্পাসে মেডিকেল টেকনোলজিস্টদের একটি কেন্দ্রীয় কর্মসূচিতে কয়েকজন ছাত্রী যেতে না পারলে ছাত্রলীগের নেতারা ছাত্রীনিবাসে ঢুকে ছাত্রীদের অকথ্য ভাষায় গালাগালি করেন। একপর্যায়ে ভেতরের কলাপসিবল গেট পর্যন্ত চলে যায় বলে ক্যাম্পাসের শিক্ষার্থীরা সাংবাদিকদের জানায়।

ওই ঘটনার প্রতিবাদে বুধবার সকাল সাড়ে নয়টার দিকে ছাত্রীনিবাসের শিক্ষার্থীরা আইএইচটির অধ্যক্ষের কাছে অভিযোগ দিতে যান। অধ্যক্ষ এসময় ছাত্রীদের বক্তব্য শুনে তদন্ত করে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন। এ সময় বাইরে ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা মিছিল বের করলে ছাত্রীরা হলে যেতে ভয় পাওয়ার প্রেক্ষিতে অধ্যক্ষ নিজে ছাত্রীদের নিয়ে হলে পৌঁছে দেন।

এবিষয়ে ক্যাম্পাসের ছাত্রীদের পক্ষ থেকে বলা হয়,নিরাপত্তার জন্য অধ্যক্ষ নিজেই ছাত্রীদের ছাত্রীনিবাসে ঢুকিয়ে দিচ্ছিলেন। এ সময় পেছনে পড়া কয়েকজন ছাত্রীর ওপর ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা হামলা চালায়।  হামলায় পাঁচজন ছাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়েন। ছাত্রীদের অভিযোগ, পুলিশ এবং অধ্যক্ষের সামনেই ছাত্রলীগের নেতারা তাঁদের ওপরে হামলা চালান। এ সময় পুলিশ কোনো ভূমিকা পালন করেনি।

যদিও ছাত্রীদের মারধর করার বিষয়টি অস্বীকার করে আইএইচটি  ছাত্রলীগ শাখার সভাপতি জাহিদুল ইসলাম। তিনি বলেন, কেন্দ্রীয় কর্মসূচিতে যোগ না দেওয়ার জন্য কয়েকজন সাধারণ ছাত্র বকাবকি করে ছাত্রীদের। অথচ এ নিয়ে ছাত্রলীগের নেতাদের নামে ছাত্রীরা অভিযোগ দিতে আসেন। এ সময় প্রতিষ্ঠানের বহিষ্কৃত ছাত্র মিজান পাগলা ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে স্লোগান দেন। তখন ছাত্রলীগ তাকে ধাওয়া করে। এতে ছাত্রীরা ভয় পায়। ভয়ে কয়েকজন অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাদের ওপরে হামলা করা হয়নি। 

কেকে

close