• মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৮, ২৯ কার্তিক ১৪২৪
  • ||

সুনামগঞ্জে এমপি পীর মিসবাহর বিশাল শোডাউন,হাজার হাজার মানুষের মিছিল

প্রকাশ:  ০১ জানুয়ারি ২০১৮, ১৮:৩৯ | আপডেট : ০১ জানুয়ারি ২০১৮, ১৯:১৩
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

জাতীয় পার্টির ৩২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে সুনামগঞ্জে বিশাল শোডাউন করেছেন সদর আসনের সংসদ সদস্য পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ। সোমবার বিকাল ৩টায় তার হাছননগরের বাসা থেকে প্রতিষ্ঠবার্ষিকীর একটি বিশাল গণমিছিল বের হয়। মিছিলে সদর ও বিশ্বম্বরপুর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন, গ্রাম-পাড়া মহল্লা থেকে দলের হাজার হাজার নেতা-কর্মী অংশ নেন।

সুনামগঞ্জে সাম্প্রতিক সময়ের বড় এই গণমিছিল এক পর্যায়ে পরিণত হয় জনতার সমুদ্রে। হাছননগর থেকে শুরু হওয়া গণমিছিলের ব্যাপ্তি ছড়িয়ে পড়ে পুরো শহরজুড়ে। প্রায় পাঁচ কিলোমিটার দীর্ঘ এই মিছিলে দলীয় নেতা-কর্মীদের পাশাপশি অংশ নেন সুনামগঞ্জ-৪ আসনের বিপুলসংখ্যক সাধারণ নারী-পুরুষ।

গণমিছিল শেষে ট্রাফিক পয়েন্টে সমাবেশ করেন জাতীয় পার্টির নেতা-কর্মীরা।

সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সুনামগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য পীর ফজলুর রহমান মিসবাহ বলেন, ‘চার বছর আগে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হওয়ার পর সাধারণ মানুষের পক্ষে কথা বলার যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম আমি সেই প্রতিশ্রুতি রক্ষা করার প্রাণপণ চেষ্টা করেছি। সংসদে এই এলাকার মানুষের উন্নয়ন ও দাবি আদায়ের পক্ষে কথা বলেছি। শত শত কোটি টাকা উন্নয়ন হয়েছে। সুরমা নদীতে আরও একটি সেতু নির্মাণসহ বড় বড় অনেকগুলোর উন্নয়ন কর্মকাণ্ড বাস্তবায়নের প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

তিনি আরো বলেন, ‘সরকারের বরাদ্দকৃত টাকা জনগণের আমানত। সেই আমানত থেকে এমপি হিসেবে এক টাকাও কমিশন নেইনি। ক্ষমতা ধরে রাখতে সন্ত্রাস লালন করিনি। পারস্পরিক শ্রদ্ধা, ভালোবাসা ও সম্প্রীতির রাজনীতির পথে হাটছি। এমপি হয়ে ঢাকায় কোন বাড়িঘর করিনি। পিতার রেখে যাওয়া টিনের ঘরটি নিয়ে আমি স্বাচ্ছন্দে আছি।’

তিনি আরো বলেন, ‘সুনামগঞ্জে এক শ্রেণির হলিডে পলিটিশিয়ান আছেন, যারা ঢাকায় বসে রাজনীতি করেন। ছুটির দিনে আসেন মায়কান্না দেখাতে। আমি সেই রাজনীতি না করে সাধারণ মানুষের সেবক হতে আত্মনিয়োগ করেছি। আমার বাড়ির দরজা সাধারণ মানুষের জন্য ২৪ ঘণ্টা রেখেছি।’

পীর মিসবাহ বলেন, ‘আগামীতে আপনাদের সমর্থন, দোয়া ও ভালবাসা নিয়ে হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের লাঙ্গল প্রতীকে নির্বাচন করতে চাই। আমি বিশ্বাস করি অতীতের মতো আপনারা আমাকে আপনাদের অকৃত্রিম ভালোবাসার সিক্ত করবেন।’

সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন, জেলা জাপার সাবেক সভাপতি ও সাবেক এমপি অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান মাস্টার, সাবেক ছাত্রনেতা সাইফুর রহমান সমছু, জেলা জাপার যুগ্ম আহ্বায়ক মোহাম্মদ আলী খোশনূর, রশিদ আহমদ, জাপা নেতা জসিম উদ্দিন লাল, জেলা যুবসংহতির আহ্বায়ক মনির উদ্দিন মনির, ইউপি চেয়ারম্যান নূরুল হক, এরশাদ আহমদ, যুবসংহতি নেতা গোলাম হোসেন অভি, জাপা নেতা শওকত আলী, মমিন মিয়া, মহিম উদ্দিন মহিম, আব্দুল মন্নান, মহিনূর মিয়া, সাজ্জাদুর রহমান সাজু, জসিম উদ্দিন, সিরাজ মিয়া, শামমি আহমদ, চান মিয়া, মুর্শেদ হাবিলদার, তোরাব আলী, ফারুক মেনর প্রমুখ।

/মজুমদার

apps