• রবিবার, ২২ জুলাই ২০১৮, ৭ শ্রাবণ ১৪২৫
  • ||

যে কারণে ঢাকা উত্তর আ.লীগের কমিটি বাতিল করলেন শেখ হাসিনা

প্রকাশ:  ০২ জানুয়ারি ২০১৮, ২০:২২
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট
ফাইল ছবি

ঢাকা মহানগর উত্তরে ‘প্রেস রিলিজ’-এর মাধ্যমে দেওয়া দলের সব থানা কমিটি বিলুপ্ত করেছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। মঙ্গলবার (২ ডিসেম্বর) দুপুরে গণভবনে মহানগরের কয়েকজন নেতা কমিটি সংক্রান্ত জটিলতা নিয়ে কথা বলতে গেলে শেখ হাসিনা এ সিদ্ধান্ত জানান। ঢাকা মহানগর উত্তরের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক কাদের খানের নেতৃত্বে প্রায় ১১ জন নেতা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন।

তারা প্রধানমন্ত্রীর কাছে ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি এ কে এম রহমতউল্লাহ ও সাধারণ সম্পাদক সাদেক খানের অনুমোদিত কমিটি (গত ২৭ ডিসেম্বর ) সম্পর্কে অভিযোগ করে নিজেদের ক্ষোভের কথা জানান। তারা বলেন, ত্যাগী ও প্রকৃত রাজনীতিকদের বাদ দিয়ে পকেটের লোক কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। ফলে দল রাজনৈতিক ক্ষতির মুখে পড়বে। প্রধানমন্ত্রী তাদের অভিযোগ শুনে কমিটি বাতিল করেন এবং নতুন পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের জন্য সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ফারুক খান, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক দীপু মনি ও সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলকে দায়িত্ব দেন। তাদেরকে সব পক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে কমিটি গঠনের নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী।

জানতে চাইলে কাদের খান বলেন, ‘নেত্রীর সঙ্গে আমরা দেখা করেছি। তিনি পূর্ণাঙ্গ কমিটি বাতিল করেছেন এবং নতুন কমিটি গঠনের বিষয়ে ফারুক খানের সঙ্গে আমাদেরকে আলোচনা করতে বলেছেন।’

জানতে চাইলে ঢাকা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, ‘আমার সঙ্গে ক্ষুব্ধ নেতারা যোগাযোগ করেছেন। আমি ফারুক খান ও দীপু মনির সঙ্গে বসে যাচাই-বাচাই করে কমিটিগুলো ঠিক করবো এবং পূর্ণাঙ্গ কমিটি করা হবে।’

গত ২৭ ডিসেম্বর মহানগর উত্তরের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞাপ্তিতে বলা হয়, তারা ২৬টি থানা, ৪৯টি ওয়ার্ড ও ৯টি ইউনিয়নের পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন করেন। ইতোমধ্যে বিভিন্ন এলাকায় কমিটির দায়িত্ব হস্তান্তরের কাজ শুরুও করেছিলেন তারা।

উল্লেখ্য, মহানগর উত্তরের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এর আগেও একবার কমিটি দিয়েছিলেন। বিভিন্ন অভিযোগের কারণে সেই কমিটিও স্থগিত করেন প্রধানমন্ত্রী।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, মঙ্গলবার গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ উত্তরের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের খান, বনানী থানার সভাপতি এ কে এম জসিমউদ্দীন, মিরপুর থানার সভাপতি এস এম হানিফ, দারুস সালাম থানার সভাপতি মাজহারুল আনাম, শাহ আলী থানার সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম মোল্লা, ৩২ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জামাল হোসেন, ২৯ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি ওমর ফারুক প্রমুখ। এসময় ঢাকার মিরপুরের সংসদ সদস্য ইলিয়াস মোল্লাও সেখানে উপস্থিত ছিলেন।

/সাজ্জাদ