• সোমবার, ১৬ জুলাই ২০১৮, ১ শ্রাবণ ১৪২৫
  • ||

মাইকিং করে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ থামালেন এমপি

প্রকাশ:  ০৩ জানুয়ারি ২০১৮, ০০:২৯ | আপডেট : ০৩ জানুয়ারি ২০১৮, ০০:৩১
মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি
প্রিন্ট

মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ মাইকিং করে থামালেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক ও মুন্সীগঞ্জ- ৩ আসনের সংসদ সদস্য মৃণাল কান্তি দাস। মঙ্গলবার বিকেল ৫টার দিকে উপেজলার বাউশিয়া ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন চলাকালে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও আহতরা জানায়, গজারিয়া উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আহমেদ রুবেল ও বাউশিয়া ইউনিয়ন ছাত্র লীগের সহসভাপতি শরীফ প্রধানের সমর্থকদের কথা কাটাকাটির জের ধরে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। চর বাউশিয়া বড় কান্দিতে বাউশিয়া ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন চলাকালীন সময়ে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে ও উভয় পক্ষের মধ্যে কয়েক দফা ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া চলে। এসময় সম্মেলনে প্রধান অতিথি সংসদ সদস্য মৃণাল কান্তি দাস মাইকের মাধ্যমে পরিস্থিত শান্ত করেন।

গজারিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত ওয়ার্ড বয় অলিউল্লাহ জানান, গজারিয়ায় উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি ইভান ফরাজী(২৬), ছাত্রলীগ কর্মী রিয়াদ(১৮), রনি মিয়া(২৫), মুরাদক(২৬)-কে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া আরও ৭ জনকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।

মুন্সীগঞ্জ জেলা স্বেচ্চাসেবক লীগের আহবায়ক আল মাহমুদ বাবু জানান, বসাবসি নিয়ে কিলঘুষির ঘটনা ঘটে এবং চেয়ার ছোড়াছুঁড়ির ঘটনা ঘটে। ২-৩ মিনিট এই ঘটনা ঘটে। তবে সম্মেলন শান্তিপূর্ণ ভাবে চলছে বলে জানান তিনি।

মুন্সীগঞ্জ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান জানান, ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। তবে এটি পূর্ব পরিকল্পিত নয়, কথাকাটাকাটির জের ধরে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে লাঠিচার্জ করে পুলিশ। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করে পরিস্থিতি শান্ত করা হয়।#