• সোমবার, ১০ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৪
  • ||

ট্রাম্পের বোতাম আরো বড়

প্রকাশ:  ০৪ জানুয়ারি ২০১৮, ১২:০৫
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট

পারমাণবিক বোমা নিয়ে উত্তর কোরিয়ার সঙ্গে অনেকদিন ধরেই শীতলযুদ্ধ চলছে ক্ষমতাধর দেশ যুক্তরাষ্ট্রের। বৈশ্বিক ক্ষমতার পট পরিবর্তনের ইঙ্গিত বিশ্ব রাজনীতিতে যাই থাকুক না কেন, এই দুই দেশের মধ্যকার যুদ্ধাবস্থা ক্রমশ পরিবর্তনের ভেতর দিয়ে যাচ্ছে।

সাম্প্রতিক সময়ে পরমাণু বোমা নিয়ে উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উন এক বক্তব্যে বলেন যে, তার প্রেসিডেন্সিয়াল টেবিলেই থাকে পরমাণু বোমার বোতাম এবং সেই বোমা যুক্তরাষ্ট্রকে উড়িয়ে দিতে সক্ষম। কিমের এমন বক্তব্যের বিপরীতে নতুন বছরের শুরুতেই মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেছেন যে, কিমের বোতামের চেয়ে তার টেবিলে থাকা বোতামটি বড় এবং তার অস্ত্রের ক্ষমতাও বেশি।

গত মঙ্গলবার এক টুইটবার্তায় ট্রাম্প বলেন, ‘কিম বলেছিলেন যে সব সময় তার ডেস্কে পরমাণু অস্ত্র উৎক্ষেপণের বোতাম থাকে। খাদ্যাভাবে ভুগতে থাকা রাজত্বের কেউ দয়া করে তাকে জানিয়ে দেবেন, আমারও এমন পরমাণু বোতাম আছে। উত্তর কোরিয়ার থেকে অনেক বড় এবং অনেক শক্তিশালী।’

ট্রাম্প যাই বলুন না কেন মার্কিন আইনসভার জিম হাইমস অবশ্য জানিয়েছেন যে, ট্রাম্পের টেবিলে এমন কোনো বোতামই নেই। কারণ হিসেবে তিনি যদিও জানিয়েছেন যে, পরমাণু বোমা উৎক্ষেপণের বিষয়টি অনেক জটিল এবং গোপনীয়। আর পরমাণু বোমা উৎক্ষেপনের জন্য দায়ী থাকে সেনাপ্রধান।

তবে হ্যা, ট্রাম্প যদি পরমাণু বোমার বোতাম চাপতেই চান সেক্ষেত্রে আগে তাকে সামরিক বাহিনীর অংশ হতে হবে। আর সামরিক বাহিনীর অংশ হতে গেলে তাকে বিশেষ ক্ষমতা প্রয়োগ করে পেন্টাগনকে বিশেষ সামরিক কোড পাঠাতে হবে। পেন্টাগন অনুমতি দিলেই তবে ট্রাম্প পারবেন পরমাণু বোমার বোতাম চাপ দিতে।

কেকে

apps