• মঙ্গলবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৩ আশ্বিন ১৪২৫
  • ||

বিধস্ত হেলিকপ্টারে ছিল কুয়েত সেনাবাহিনীর প্রতিনিধি দল

প্রকাশ:  ০৪ জানুয়ারি ২০১৮, ১৪:৩৬ | আপডেট : ০৪ জানুয়ারি ২০১৮, ১৫:৩৮
প্রতিনিধি
প্রিন্ট

মৌলভীবাজারে শ্রীমঙ্গলে বিজিবি ক্যাম্পে বিধ্বস্ত হেলিকপ্টারে কুয়েত সামরিক বাহিনীর প্রতিনিধি দল ছিল। শ্রীমঙ্গলের চা শিল্পের উন্নয়নে কুয়েত সরকারের অর্থায়নে একটি প্রকল্পের সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের কাজে বিদেশি এসব অতিথিরা এসেছিলেন। বুধবার (০৩ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ১০টায় শ্রীমঙ্গল বিজিবি ক্যাম্পে অবতরণের সময় হেলিকপ্টারটি রানওয়ে থেকে ছিঁটকে পড়ে বিধ্বস্ত হয়। দুর্ঘটনায় কুয়েত সেনাবাহিনীর ৩ মেজর জেনারেল ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর এক পাইলট আহত হন। এ সংক্রান্ত একটি সংবাদ কুয়েত নিউজ এজেন্সিও প্রকাশ করেছে।

হেলিকপ্টার বিধস্ত ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী শ্রীমঙ্গল ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল স্টেশন ম্যানেজার আজিজুল হক রাজন জানান, মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলের কালীঘাট রোডের বিজিবি ক্যাম্পের ভেতরে বিমান বাহিনীর হেলিকপ্টারটি বিধ্বস্ত হলে আরোহীদের উদ্ধারে তৎপর হই আমরা। ভেতর থেকে একে একে ২১ জন আরোহীকে বাইরে নিয়ে আসি। এদের মধ্যে ৬ জন ক্রু, ২ জন কুয়েত সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা ও ১৩ জন বাংলাদেশ সেনা ও বিমানবাহিনীর উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা ছিলেন।’

তিনি বলেন, ‘হেলিকপ্টারটি ঢাকা থেকে রওনা হলে আমাদের ফোন করে জানানো হয়। খবর পেয়ে আমরা হেলিকপ্টারটির অবতরণ স্থানের ১০০ গজ দূরে অবস্থান নেই।’

এদিকে ঘন কুয়াশার কবলে পড়ে অবতারণের আগে হঠাৎ হেলিকপ্টারটি একটি পাঁচতলা বিল্ডিংয়ের (১৫-২০ ফুট) নিচে নেমে আসে। এরপর ওই বিল্ডিংয়ের গা ঘেঁষে একটু সামনে গিয়ে একটি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের ছাদে আছড়ে পড়ে। এতে হেলিকপ্টারটির একটি ডানা (পাখা) ভেঙে যায়। ওই অবস্থায় আবারো বিকট শব্দে নিচের পাকা গ্রাউন্ডে পড়ে হেলিকপ্টারটি। এসময় সামনের দিকটা চূর্ণ-বিচূর্ণ হয়ে যায়।

শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. জয়নাল আবেদীন টিটো ও ডা. রিপন চন্দ্র দাস বলেন, ‘হেলিকপ্টারের আরোহীদের মধ্যে চার জন আহত হন। এর মধ্যে বিজিবির ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট মেহেদী ও সিনিয়র ওয়ারেন্ট অফিসার মো. ফরহাদকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং কুয়েত সেনাবাহিনীর মেজর জেনারেল খালিদ মো. আব্দুল্লাহ ও মেজর জেনারেল আলী আল বাশারকে মৌলভীবাজার সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। অন্যরা সবাই সুস্থ রয়েছেন।’

উল্লেখ্য, বুধবার (০৩ জানুয়ারি) সকাল ১০টা ১৮ মিনিটে শ্রীমঙ্গলের কালীঘাট রোডের বিজিবি সেক্টরের ভেতরে ২১ জন আরোহী নিয়ে বিমান বাহিনীর একটি হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়। এ ঘটনায় কুয়েত সেনাবাহিনীর দুই কর্মকর্তাসহ চার জন আহত হন।

/মজুমদার

`আমাদের বেতন দিন নয় গুলি করুন'