• মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫
  • ||

মেয়র সাক্কুর জামিন বাতিল, আত্মসমর্পণের নির্দেশ

প্রকাশ:  ০৪ জানুয়ারি ২০১৮, ১৬:৩৭ | আপডেট : ০৪ জানুয়ারি ২০১৮, ১৬:৩৯
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট
ফাইল ছবি

জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলায় কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের (কুসিক) মেয়র মনিরুল হক সাক্কুকে অব্যাহতি দিয়ে বিশেষ আদালতের দেয়া আদেশ কেন অবৈধ হবে ও বেআইনি ঘোষণা করা হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

একই সঙ্গে এ মামলায় তার জামিন বাতিল করে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণ করতে বলা হয়েছে। পাশাপাশি বিচারিক আদালতে সাক্কু জামিন চাইলে জামিনের বিষয়টি বিবেচনা করতে বলেছেন আদালত।

দুর্নীতি দমন কমিশন দুদকের করা আবেদন শুনানি নিয়ে বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন। আদালতে দুদকের আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী খুরশিদ আলম খান।

দুদকের আইনজীবী অ্যাডভোকেট খুরশীদ আলম খান আদেশের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এর আগে গত সপ্তাহে জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুদকের মামলায় কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মনিরুল হক সাক্কুকে অব্যাহতি দেয়ার বিরুদ্ধে রিভিশন আবেদন করেছিলাম। আজ এ বিষয়ে শুনানি নিয়ে এই আদেশ দেন। কিন্তু সাক্কুকে কত দিনের মধ্যে আত্নসমর্পণ করতে হবে তা বলা হয়নি।

এর আগে গত ২১ নভেম্বর দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) দায়ের করা মামলা থেকে অব্যাহতি পান কুসিকের প্রথম মেয়র সাক্কু। বর্তমানে সাক্কুর বিরুদ্ধে আর কোনো মামলা নেই। ঢাকার ৮নং বিশেষ জজ আদালতের বিচারক শামীম আহম্মদ তাকে অব্যাহতি প্রদান করেন।

জানা গেছে, চার কোটি ৫৭ লাখ ৭১ হাজার ৯৩৩ টাকার জ্ঞাত আয় বহির্ভূত অবৈধ সম্পদ অর্জন ও এক কোটি ১২ লাখ ৪০ হাজার ১২০ টাকার সম্পদের তথ্য গোপন করে মিথ্যা তথ্য দিয়ে দুদকে সম্পদ বিবরণী দাখিল করেন। পরে ওই অভিযোগে ২০০৮ সালের ৭ জানুয়ারি রাজধানীর রমনা থানায় দুদকের তৎকালীন সহকারী পরিচালক শাহিন আরা মমতাজ মামলা করেন। ২০১৬ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি সাক্কুর বিরুদ্ধে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের (সিএমএম) আদালতে চার্জশিট দাখিল করে দুদক।

গত ৩০ মার্চ কুসিকে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে পরাজিত করে মেয়র নির্বাচিত হন বিএনপি প্রার্থী মনিরুল হক সাক্কু। টানা দ্বিতীয়বারের মতো মেয়রের দায়িত্ব নেন তিনি।