• শনিবার, ২৬ মে ২০১৮, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
  • ||

অফিস করেননি চার মন্ত্রী, নেপথ্যে কী

প্রকাশ:  ০৪ জানুয়ারি ২০১৮, ১৯:৫৪ | আপডেট : ০৪ জানুয়ারি ২০১৮, ২০:০৯
পূর্বপশ্চিম ডেস্ক
প্রিন্ট
সরকারের মেয়াদের চার বছরের মাথায় মন্ত্রিসভার সম্প্রসারণে তিন জন মন্ত্রী এবং একজন প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন। এছাড়া, রদবদল হয়েছে আরও তিনটি মন্ত্রণালয়ে। ইতোমধ্যে নতুন মন্ত্রীদের দফতরও বণ্টনও করা হয়েছে। তবে নতুন দায়িত্ব পাওয়ার পর বৃহস্পতিবার (৪ জানুয়ারি) অফিস করেননি চার মন্ত্রী। তারা হলেন- পানিসম্পদমন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু, বন ও পরিবেশমন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, তথ্য প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম, মাদ্রাসা শিক্ষা ও কারিগরি শিক্ষা বিভাগের প্রতিমন্ত্রী কেরামত আলী।

বন ও পরিবেশমন্ত্রী এবং পানিসম্পদমন্ত্রী

নতুন মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পাওয়ার পর বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে আসেননি নতুন বন ও পরিবেশমন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এবং পানিসম্পদমন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু।

অফিস না করার বিষয়ে পানিসম্পদমন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু বলেন, দেয়ার ইজ নো হারি। যার সঙ্গে আমার মন্ত্রণালয় এক্সচেঞ্জ হয়েছে, তিনি আমার শিক্ষাজীবনের বন্ধু, এখন আত্মীয়ও বটে।

আজ  (বৃহস্পতিবার) অফিস না করার কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা প্রধানমন্ত্রীর ভিডিও কনফারেন্সে গিয়েছিলাম।

আগামী রোববার থেকে অফিস করবেন কিনা এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, হা, উচিত হবে।

এদিকে, নতুন বন ও পরিবেশমন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

তথ্য প্রতিমন্ত্রী

মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, দফতর বণ্টনের পর তারানা হালিমের জন্য বরাদ্দ পাওয়া কক্ষ এখনও সংস্কার করা হয়নি। মন্ত্রণালয়ের প্রশাসন শাখার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, তারানা হালিমের জন্য তথ্য মন্ত্রণালয়ের (ভবন ৪ নম্বর) ৯ম তলার ৮০১ নম্বর রুমটি সংস্কার করা হচ্ছে। ওই কক্ষে আগে বসতেন অতিরিক্ত তথ্য সচিব নাসির উদ্দিন আহমেদ। সম্প্রতি তিনি ভারপ্রাপ্ত সচিব হয়ে সচিবের রুমে চলে এসেছেন। ফলে ২ জানুয়ারি থেকে রুমটি ফাঁকা হয়েছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, রুমের সংস্কার কাজ চলছে। সেখানে কর্মরত শ্রমিক কামরুল ইসলাম বলেন, আগামী শনিবারের মধ্যে রুমের সংস্কার কাজ সম্পন্ন হবে।

এদিকে, তারানা হালিমের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি। তবে তার একজন ঘনিষ্ঠ ব্যক্তিগত কর্মকর্তা জানান, মন্ত্রী মহোদয় অফিসে যাননি। রোববার (৭ জানুয়ারি) থেকে তিনি অফিস করবেন বলে আমাদের জানিয়েছেন। আজ কেন সচিবালয়ে তিনি যাননি, সেটা আমি জানি না।

অন্যদিকে, মন্ত্রণালয়ের প্রশাসন শাখা থেকে জানানো হয়েছে, তথ্য প্রতিমন্ত্রী আগামী রোববার থেকে অফিস করবেন। এর আগেই তার রুমের সংস্কার কাজ শেষ হবে।

শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী

জানা গেছে, নতুন দায়িত্ব পাওয়া মাদ্রাসা শিক্ষা ও কারিগরি বিভাগের শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী কাজী কেরামত আলীর জন্য এখনও রুম বরাদ্দ হয়নি। তবে তিনিও রোববার (৭ জানুয়ারি)  থেকে অফিস করবেন।

এ বিষয়ে জানতে প্রতিমন্ত্রীর মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি। তবে জানা গেছে, জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি সম্মান জানাতে  বৃহস্পতিবার তিনি গোপালগঞ্জে গেছেন।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী

নতুন পদোন্নতি পাওয়া মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী নারায়ণ চন্দ্র চন্দ চিকিৎসার জন্য এ মুহূর্তে ভারতের ভেলরে অবস্থান করছেন। বুধবার (৩ জানুয়ারি) মন্ত্রিপরিষদ সভার বৈঠকে অংশ নেওয়ার পর ওই দিন বিকালে তিনি সচিবালয়ে এসেছিলেন।

অফিস করেছেন চার মন্ত্রী

বৃহস্পতিবার অফিস করেছেন নতুন বিমানমন্ত্রী একেএম শাহজাহান কামাল, সমাজকল্যাণমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন এবং ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। তাদের মধ্যে শাহজাহান কামাল ও রাশেদ খান মেনন সকাল সাড়ে ৯টার দিকে সচিবালয়ে আসেন। আর মোস্তাফা জব্বার আসেন বেলা আড়াইটার পরে।

জানা গেছে, তিনি সকালে আগারগাঁওয়ের আইসিটি বিভাগে অফিস করেছেন।

এছাড়া, যথারীতি অফিস করেছেন সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ।


সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন