• রবিবার, ২২ জুলাই ২০১৮, ৭ শ্রাবণ ১৪২৫
  • ||

'ট্রেন মিসতো বিএনপির ভবিষ্যৎ ফিনিশ'

প্রকাশ:  ০৬ জানুয়ারি ২০১৮, ০০:২২ | আপডেট : ০৬ জানুয়ারি ২০১৮, ০০:৫৮
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট
ফাইল ছবি

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সময় কারো জন্য অপেক্ষা করে না। নির্বাচনও কারো জন্য অপেক্ষা করবে না। সঠিক সময়েই হবে। এবার নির্বাচনের ট্রেন মিস করলে বিএনপির রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ ফিনিশ হয়ে যাবে।

দশম সংসদ নির্বাচনের ৪ বছরপূর্তি উপলক্ষে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে ঢাকা দক্ষিণ আওয়ামী লীগের এক জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বর্তমানে বিএনপির অবস্থা মুসলিম লীগের চেয়েও খারাপ বলে মন্তব্য করে ওবায়দুল কাদের বলেন, দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মতো আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন বর্জন করলে বিএনপির ভবিষ্যৎ বলতে কিছু থাকবে না। বিরল প্রজাতির প্রাণীর মতো বিলুপ্ত হয়ে যাবে।

তিনি বলেন, বিএনপির নেতারা বলে- কর্মীরা মাঠে নামে না। অন্যদিকে কর্মীরা বলে, নেতারা মাঠে নামে না। আগামীকাল নাকি বিএনপি বিক্ষোভ ডেকেছে। সেই বিক্ষোভ কে করবে? বিগত নয় বছরে রাস্তাঘাটে কেউ বিক্ষোভ করেনি। তবে মাঝেমধ্যে বিএনপির যদি কোনও কর্মী বিভোক্ষ করেও থাকে কিন্তু বিএনপির নেতারা বাড়িতে বসে হিন্দি ছবি দেখে সময় কাটান। আর ঘরে বসে খবর নেয়- পুলিশ গরম না নরম।

পদ্মা সেতু নিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসনের বক্তব্যের সমালোচনা করে ওবায়দুল কাদের বলেন, খালেদা জিয়া বলেন, পদ্মা সেতু নাকি জোড়াতালি দিয়ে হচ্ছে। সেতু তৈরি করতে কি জোড়া লাগে না? তিনি নাকি পদ্মা সেতুতে ওঠবেন না? সেতুতে সবাই ওঠবেন, তিনি যদি না ওঠেন ফেরিতে যেতে পারেন।

বর্তমান সংসদকে অবৈধ দাবি করায় খালেদা জিয়া, বিএনপি ও আওয়ামী লীগের সাবেক নেতা ড. কামাল হোসেনের সমালোচনা করে তিনি বলেন, আমি সবিনয়ে খালেদা জিয়া ও ড. কামাল হোসেনকে বলতে চাই, আইপিইউ যে পার্লামেন্টকে স্বীকৃতি দিয়েছে, তাহলে কি গণতন্ত্রের সংকট আছে? আপনারা যদি নির্বাচনে অংশ না নেন তাহলে সেটা কি গণতন্ত্রের দোষ?

প্রসঙ্গত, ২ জানুয়ারি ছাত্রদলের জনসভায় খালেদা জিয়া পদ্মা সেতুতে কাউকে না উঠতে আহ্বান জানিয়েছিলেন। ওই জনসভায় তিনি বলেছিলেন, পদ্মা সেতু জোড়াতালি দিয়ে বানানো হচ্ছে এবং এটাতে ওঠা বিপজ্জনক হতে পারে।

আওয়ামী লীগ দশম সংসদ নির্বাচনের ভোটের দিনটিকে গণতন্ত্রের বিজয় দিবস হিসেবে পালন করে। দেশব্যাপী সভা-সমাবেশের মধ্য দিয়ে দিবসটি পালন করেছে ক্ষমতাসীন দল।