• শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫
  • ||

আওয়ামী সরকার ভীরু ও কাপুরুষ: রিজভী

প্রকাশ:  ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৩:১৮ | আপডেট : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৩:২৪
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, আওয়ামী সরকার ভীরু ও কাপুরুষ, তাদের কোনো সাহস নেই। আছে শুধু ভয় ও আশঙ্কা। যদি সাহস থাকতো তবে প্রধানমন্ত্রী পদত্যাগ করে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের পথ সুগম করার জন্য নির্দলীয় সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করতেন। কিন্তু জনবিচ্ছিন্ন হওয়ায় অপরিণামদর্শী স্বৈরাচারী আওয়ামী সরকার এখন হিতাহিত জ্ঞানশূন্য।

শুক্রবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টায় রাজধানীর নয়াপল্টনের দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন।

রিজভী বলেন, যেকোনও মুহূর্তে পিছলে যাওয়ার ভয়ে তারা পুলিশের ওপর নির্ভর করে মামলা হামলা ও গ্রেফতারের শৃঙ্খলে জনগণকে বন্দি করতে সর্বশক্তি নিয়োগ করেছে।

পুলিশ মামলা হামলার বন্যা বইয়ে দিয়েছে দাবি করে তিনি আরও বলেন, মতিঝিল থানায় বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, বাবু গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আমিনুল হক, আইনবিষয়ক সম্পাদক সানাউল্লাহ মিয়া এবং পল্টন থানার একটি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আব্দুস সালামসহ অসংখ্য নেতৃবৃন্দের নামে মিথ্যা ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মামলা করা হয়েছে।

বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব বলেন, আমি দলের পক্ষ থেকে এই অসত্য ও বানোয়াট মামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং অবিলম্বে মামলা প্রত্যাহারের জোর দাবি করছি।

তিনি বলেন, এছাড়া গতকাল দলের জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ও বর্ষীয়ান রাজনীতিবিদ তরিকুল ইসলাম, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চৌধুরী, ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীবিষয়ক সম্পাদক এমএ মালেক, সংস্কৃতিবিষয়ক সম্পাদক নায়ক উজ্জ্বল, জাসাস সাধারণ সম্পাদক নায়ক হেলাল খান, সহমহিলাবিষয়ক সম্পাদক সুলতানা আহমেদসহ বহু নেতৃবৃন্দের বাসায় পুলিশ হানা দেয় এবং তল্লালির নামে ব্যাপক তাণ্ডব চালায়।

রিজভী আরও বলেন, দেশের বিশিষ্ট ও জাতীয় রাজনীতিবিদদের বাসভবনে পুলিশ কর্তৃক তল্লাশির নামে এই ন্যক্কারজনক তাণ্ডবের ঘটনায় আমি দলের পক্ষ থেকে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

তিনি অভিযোগ করেন, অসাংবিধানিকভাবে কারাগারে আদালত বসিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মামলার রায় চায় রাষ্ট্রপক্ষ। বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রপক্ষ আদালতকে বলেছেন, যেহেতু খালেদা জিয়া আদালতে আসতে চাইছেন না, তাই মামলার কার্যক্রম স্থগিত করে রায় ঘোষণার দিন ধার্য করুন। আদালতের কার্যক্রম শেষ করতে লিখিত আবেদনও দিয়েছে রাষ্ট্রপক্ষ। রাষ্ট্রের অবৈধ কর্তৃপক্ষ আওয়ামী সরকার চক্রান্তমূলকভাবেই খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে তাকে সাজা দিয়েছে। তা আবারও প্রমাণ করলেন রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা।

/অ-ভি

বিএনপি,জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব,রুহুল কবির রিজভী,আওয়ামী লীগ
apps