• শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮, ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫
  • ||

জাফরুল্লাহর উদ্দেশ্য জানতে ক্যান্টনমেন্ট থানায় সেনা সদরের জিডি

প্রকাশ:  ১৫ অক্টোবর ২০১৮, ১৪:৩৭
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট

বর্তমান সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ সম্পর্কে বিরূপ মন্তব্য করার গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর বিরুদ্ধে রাজধানীর ক্যান্টনমেন্ট থানায় জিডি (সাধারণ ডায়েরি) করেছে সেনা সদর। সম্প্রতি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল সময় টেলিভিশনের একটি টক-শোতে বর্তমান সেনা প্রধানের বিরুদ্ধে বিরূপ মন্তব্য করেন তিনি।

ক্যান্টনমেন্ট থানার পরিদর্শক (তদন্ত) কবির হোসেন হাওলাদার বলেন, গত শুক্রবার সেনা সদরের একজন মেজর বাদী হয়ে একটা জিডি করেছেন। জিডি নম্বর ৪৯৮। জিডিটি আমরা তদন্ত শুরু করেছিলাম। পরে এটি তদন্তের জন্য ডিবির (ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ) কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এখন এটি ডিবি তদন্ত করবে।

জিডিতে উল্লেখ করা হয়েছে, ৯ অক্টোবর রাতে সময় টিভির সম্পাদকীয় অনুষ্ঠানে সেনাপ্রধান সম্পর্কে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর বক্তব্য উদ্দেশ্যপ্রণোদিত, বিদ্বেষপ্রসূত ও ষড়যন্ত্রমূলক। তিনি কেন, কী উদ্দেশ্যে এবং কাদের প্ররোচনায় এ বক্তব্য দিয়েছেন- তা তদন্তের জন্য জিডিতে দাবি জানানো হয়।

সময় টিভির টকশোতে ‘সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ কোর্ট মার্শালও হয়েছেন’সহ নানা ধরনের অসত্য বক্তব্য তুলে ধরেন ডা. জাফরুল্লাহ। এর দুইদিন পর সংবাদ সম্মেলন করে ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, ‘সেনাপ্রধানকে নিয়ে টেলিভিশনের টকশোতে বিরূপ মন্তব্যের জন্য আমি দুঃখ প্রকাশ করছি। জেনারেল আজিজ আহমেদ কখনও চট্টগ্রামের জিওসি বা কমান্ডেন্ট ছিলেন না। তার বিরুদ্ধে কখনও কোর্ট মার্শালও হয়নি। অসাবধানতাবশত এসব তথ্য বক্তব্যে এসেছে।

জিডিতে উল্লেখ করা হয়েছে, ৯ অক্টোবর রাতে সময় টিভির সম্পাদকীয় অনুষ্ঠানে সেনাপ্রধান সম্পর্কে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর বক্তব্য উদ্দেশ্যপ্রণোদিত, বিদ্বেষপ্রসূত ও ষড়যন্ত্রমূলক। তিনি কেন, কী উদ্দেশ্যে এবং কাদের প্ররোচনায় এ বক্তব্য দিয়েছেন- তা তদন্তের জন্য জিডিতে দাবি জানানো হয়।

সময় টিভির টকশোতে ‘সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ কোর্ট মার্শালও হয়েছেন’সহ নানা ধরনের অসত্য বক্তব্য তুলে ধরেন ডা. জাফরুল্লাহ। এর দুইদিন পর সংবাদ সম্মেলন করে ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, ‘সেনাপ্রধানকে নিয়ে টেলিভিশনের টকশোতে বিরূপ মন্তব্যের জন্য আমি দুঃখ প্রকাশ করছি। জেনারেল আজিজ আহমেদ কখনও চট্টগ্রামের জিওসি বা কমান্ডেন্ট ছিলেন না। তার বিরুদ্ধে কখনও কোর্ট মার্শালও হয়নি। অসাবধানতাবশত এসব তথ্য বক্তব্যে এসেছে।

জাফরুল্লাহ,সেনা সদর
apps