• বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫
  • ||

‘প্রশ্নফাঁস আগে ধামাচাপা হতো, এখন ব্যবস্থা নিচ্ছি বলেই প্রকাশ পাচ্ছে’ (ভিডিও)

প্রকাশ:  ১৭ অক্টোবর ২০১৮, ০৩:১৬ | আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০১৮, ১০:১৭
ঢাবি প্রতিনিধি
প্রিন্ট

ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁস হওয়া প্রসঙ্গে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) উপাচার্য অধ্যাপক আখতারুজ্জামান বলেন, প্রশ্নফাঁসের ঘটনা আগেও ঘটেছে। তবে তা জনসম্মুখে আসার আগেই ধামাচাপা দেওয়া হতো। এখন এধরনের অপকর্ম বিরুদ্ধে ব্যাবস্থা নিচ্ছি। তাই বিষয়গুলো সামনে আসছে, সাবই জানতে পারছেন। আমরা এখন অনেক এগিয়েছি, এখন প্রশ্নফাঁস হচ্ছে পরীক্ষার দু’এক ঘণা্টা আগে। আমরা সময়টা অনেক কাছে নিয়ে আসছি। আগে কখনও কখনও শুনতাম দুইদিন-একদিন আগে।

তিনি বলেন, শিক্ষার মান বজায়ে আগের যে কোনো সময় থেকে বর্তমান বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন অনেক বেশি তৎপর ও সচ্ষ্টে।

বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রশাসনিক ভবনের কেন্দ্রীয় ভর্তি অফিসে 'ঘ’ ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষার আনুষ্ঠানিক ফল ঘোষণার পর মঙ্ঘলবার সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

বিশ্ববিদ্যালয় ও ক্যাম্পাসের বাইরে ৮১টি কেন্দ্রে ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয় গত শুক্রবার সকাল ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত । পরীক্ষা শুরুর ৩১ মিনিট পরই হাতে লেখা প্রশ্নপত্রের ১৪টি ছবি সাংবাদিকদের হাতে আসে। ভর্তি পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ ওঠার পর পরীক্ষা বাতিলের দাবি জানান ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীরা। কিন্তু তা অগ্রাহ্য করেই ফাঁস হওয়া প্রশ্নে নেওয়া পরীক্ষার ভিত্তিতে ফল ঘোষণা করেছে ঢাবি।

প্রশ্ন ফাঁসের ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ায় তৎপর হয়েছে। প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগে মামলা হয়েছে, েএতে গ্রেফতার হয়েছেন ছয়জন।

এ বিষয়টি সাংবাদিকদের সামনে বড় করে তুলে ধরার চেষ্টা করে উপাচার্য বলেন, অামরা ঘটেনাটি দ্রুত ধরে ফেলতে পারছি এবং আইডেন্টিফাই করে দ্রুত আইনের আওতায় আনতে পেরেছি। এটি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের একটি বড় সাফল্য এবং সক্ষমতা।

অধ্যাপক আখতারুজ্জামান বলেন, আগে অপকর্ম ঘটিয়ে অপরাধীর পার পেয়ে যেত বলে আবার ওই একই কাণ্ড ঘটাতে পিছু পা হতো না। আর এইবার বিশ্ববিদ্যালয়পরীক্ষার হল থেকে ডিভাইসসহ ধরে নিয়ে আটক করছে, গ্রেফতার করােচ্ছে। প্রথমবারের মতো মামলাও করলো। আগে কখনো যা ঘটেনি।

উপাচার্য জানান, প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগ তদন্তে তিন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক মুহাম্মদ সামাদের নেতৃত্বে তিন সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেছে কর্তৃপক্ষ। কমিটির দুই সদস্য হলেন- জীববিজ্ঞান অনুষদের ডিন ইমদাদুল হক ও সহকারী প্রক্টর মাকসুদুর রহমান। খুব শিগরিই প্রতিবেদন জমা দেবে।

এনই/

ঘ’ ইউনিটের ভর্তি,উপাচার্য অধ্যাপক আখতারুজ্জামান
apps