• সোমবার, ২৮ মে ২০১৮, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
  • ||

যে কারণে হাফিজ সাঈদের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করবে পাক সরকার

প্রকাশ:  ০১ জানুয়ারি ২০১৮, ২১:০১ | আপডেট : ০১ জানুয়ারি ২০১৮, ২১:০৪
আর্ন্তজাতিক ডেস্ক
ফাইল ছবি
প্রিন্ট
হাফিজ সাঈদের সম্পত্তি ও জনগণের দেওয়া 'দানের অর্থ' বাজেয়াপ্ত করতে চলেছে পাকিস্তান সরকার। পাক সরকারের পরিকল্পনা অনু‌যায়ী, সাঈদের দুটি সংগঠন জামাত-উদ-দাওয়া ও ফালহা-ই-ইনসানিয়াত ফাউন্ডেশন এর সম্পত্তি কীভাবে বাজেয়াপ্ত করা হবে সে বিষয়ে দেশের ৫টি প্রদেশের প্রশাসনকে বিস্তারিত ভাবে জানানো হয়েছে।

সম্প্রতি, গৃহবন্দিদশা থেকে সাঈদকে মুক্তি দিয়েছে পাক আদালত। কিন্তু মার্কিন ‌যুক্তরাষ্ট্র বরাবরই বলে আসছে, জামাত-উদ-দাওয়া ও ফালাহ-ইনশানিয়াত হল লস্করেরই শাখা সংগঠন। তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিও জানানো হয়েছে বারবার।

এদিকে, জঙ্গিদের টাকা আদান প্রদানের উপরে আন্তর্জাতিক নজরদারি সংস্থা ফাইনানশিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্স পাকিস্তানকে সাঈদের ওই দুই সংগঠনের লেনদেনের ব্যাপারে অভি‌যোগ করেছে। সেই চাপেই সাঈদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে চলেছে পাক সরকার, এমনটাই মনে করছে আন্তর্জাতিক মহল।

গত ১৯ ডিসেম্বর এক বিশেষ নির্দেশে ,পাকিস্তান সরকার দেশের বিভিন্ন প্রভিন্সের প্রশাসনের কাছে, হাফিজ সইদের সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার বিষয়ে নির্দেশ দেয়। এবিষয়ে পাকিস্তানের ৫ টি প্রভিন্সের প্রশাসনকে নিজেদের অ্যাকশন প্ল্যানের কথা জানাতেও বলেছে ইসলামাবাদ। অ্যাকশন প্ল্যান জানানোর শেষ তারিখ ২৮ ডিসেম্বর, এমনই এক নথির কথা গোপনসূত্র মারফৎ জানতে পেরেছে রয়টার্স। 

জানা গিয়েছে, এফএটিএফ নামের এক আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের তরফে প্রবল চাপের মুখে পড়েই এমন পদক্ষেপ নিতে চলেছে পাকিস্তান। এফএটিএফ নামের ওই প্রতিষ্ঠান অর্থনৈতিক দুর্নীতি তথা জঙ্গি কার্যকলাপের ব্যবহৃত টাকার হিসাব রাখে। এই প্রতিষ্ঠানের তরফে, পাকিস্তানকে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে, যে যদি জঙ্গি সংগঠনের টাকার ওপর নিয়ন্ত্রণ না রাখাতে পারে পাকিস্তান, তাহলে চরম বিপদের মুখে পড়তে হতে পারে তাদের। এরপরই নড়েচড়ে বসে পাক প্রশাসন।

/সাজিদ