• বৃহস্পতিবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৮, ১৩ বৈশাখ ১৪২৫
  • ||
  • আর্কাইভ

'ম্যাডাম আল্লাহর ওয়াস্তে জাতিকে মাফ করে দেন, দয়া করে রাজনীতি থেকে অবসর নিন'

প্রকাশ:  ০৯ জানুয়ারি ২০১৮, ২০:৪৭
মেজর (অব.) আখতারুজ্জামান
প্রিন্ট

স্যার, মনে আছে কি ১/১১ এর সময় আপনি চ্যানেল আই এর তৃতীয় মাত্রায় ম্যাডামকে উদ্দেশ্য করে দুই হাত করজোরে বলেছিলেন, “ ম্যাডাম আল্লাহর ওয়াস্তে জাতিকে মাফ করে দেন। দয়া করে রাজনীতি থেকে অবসর নিন”।

যদি মনে না থাকে তাহলে অনুষ্ঠানের রেকর্ডকৃত কপি আছে, চাইলে আপনার কাছে পাঠাইতে পারি। কথাগুলো এতদিন পরে আপনাকে মনে করিয়ে দিতে চাচ্ছি এই জন্য যে, আজকের পত্র-পত্রিকায় গত রাতে ২০ দলীয় সভায় আপনার একটি বক্তব্য পড়লাম। আপনি আপনার দলের নেতাদের কাছে বলে আসতেছেন যে, আপনি আসন্ন ঢাকা উত্তর সিটি নির্বাচনে প্রার্থী দিবেন। কিন্তু গত রাতের সভায় আপনি নিজের দলের প্রার্থীর নাম প্রস্তাব না করে অন্য দুইজন প্রার্থীর নাম প্রকাশ করে প্রস্তাব করেন যে, ''এ দু'জনের কাকে প্রার্থী করা হবে তা আপনার সিদ্ধান্ত”। স্যার আপনি এখন তথা কথিত পরিবর্তনের রাজনীতি নিয়ে মাঠে নেমেছেন যা আপনাকে দিয়ে ১/১১ এর কুশিলবরা মাঠে নামিয়েছিল।

বিএনপির অনেক ছোট-খাট নেতারা আছেন, যাদের একটি ইউনিয়নে যে পরিমাণ কর্মী আছে সে পরিমাণ জনসমর্থন আপনার দলেরই নাই। অথচ আপনি পরিবর্তনের দোয়াই দিয়ে একই কায়দায় সাবেকী ঢংয়ে চাটুকারিতা করেন এবং ২০ দলীয় জোটের নেতা সেজে বিএনপিকে বেকায়দায় ফেলেন।
 
আপনি একটি দলের প্রধান। আপনাকে 'ফাজুল' বক্তব্য দেয়া মানায় না।


কারণ দলের মনোনয়ন দিবে দলের মনোরয়ন কমিটি। তারপর যার যার প্রার্থী নিয়ে আলোচনা হবে ২০ দলীয় ফোরামে। সেখানে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে একক প্রার্থীর নাম, যেটা হলো গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়া। সম্ভবত পরিবর্তনের নামে আপনারা যা চাচ্ছেন। অথচ জামায়াত সেখানে শত প্রতিকূলতার পরেও নিজেদের প্রার্থীর নাম ঘোষণা করে আলোচনার মাধ্যমে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানায়।  

স্যার, আপনাদের অপরিপক্ক রাজনীতিবিদদের কারণে রাজনীতি আজকে কলঙ্কিত। গণতন্ত্রের 'গ' সম্বন্ধেও আপনাদের ন্যূনতম শ্রদ্ধাবোধ নাই, অথচ বিভিন্ন স্বার্থগোষ্ঠিীর প্ররোচনায় অথবা নিজেদের নেতা হওয়ার খায়েসে দল ফেলে কেন্দ্রীয় নেতা হয়ে যান এবং সেই স্বঘোষিত নেতা হওয়ার সুবিধা জোটের সংখ্যা বাড়িয়ে চাটুকারিতার নতুনমাত্রা যোগ করেন। সিদ্ধান্ত যদি এককভাবে ম্যাডামই দিবেন, তাহলে আপনার চাটুকারিতার কি দরকার? আপনি কি তাহলে ওই দুই প্রার্থীর দালাল (!) ( sorry to use this word)। এর নাম পরিবর্তনের রাজনীতি হতে পারে না!

স্যার, আমি কি আপনাকে প্রশ্ন করতে পারি যে প্রার্থী নিয়ে ম্যাডামের সামনে কথা উঠলে আপনি আমার নামটি প্রকাশ করবেন বলে কথা দিয়েছিলেন, কিন্তু কেন এবং কি কারণে আপনি তা করলেন না?

স্যার, আপনার কাছ থেকে এই ধরনের মিথ্যা আশ্বাসের রাজনীতি জনগণ প্রত্যাশা করে না। জনগণ আপনার মত একজন দক্ষ, অভিজ্ঞ, চৌকশ সামরিক অফিসারের কাছে সত্য এবং স্পষ্টবাদীতা কামনা করে এবং সেই চরিত্র আপনার পরিবর্তন করা ভাল হয় নাই।  

লেখক: সাবেক সংসদ সদস্য। (ফেসবুক পেইজ থেকে সংগৃহীত)