• মঙ্গলবার, ১৪ আগস্ট ২০১৮, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৫
  • ||

শেষ বলে ক্যাচ ধরে ম্যাচ জিতল পাঞ্জাব

প্রকাশ:  ২৪ এপ্রিল ২০১৮, ০১:২০ | আপডেট : ২৪ এপ্রিল ২০১৮, ০১:৩০
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রিন্ট

শুরু থেকে অসাধারণ ব্যাটিং করেও দিল্লিকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দিতে পারলেন না সুরেশ আয়ার। শেষ বলে ক্যাচ ধরে ৪ রানে ম্যাচ জিতে নিলো পাঞ্জাব।

শেষ ওভারে জয়ের জন্য দিল্লির প্রয়োজন ছিল ১৭ রান। কঠিন লক্ষ্যের সামনে দাঁড়িয়েও দারুণ ব্যাটিং করে গেছেন তরুণ ক্রিকেটার আয়ার।

ওভারের প্রথম বল ডট। দ্বিতীয় বলে ছয় হাঁকিয়ে দলকে খেলায় রাখেন আয়ার। পরের দুই বলে নেন ২ রান। পঞ্চম বলে বাউন্ডারি হাঁকালে শেষ বলে টার্গেট দাঁড়ায় ৫ রান।

শেষ বলে ছক্কা হাঁকিয়ে দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু মজিবর রহমানের বলে লং অফে ক্যাচ উঠে গেলে তা লুপে নিতে ভুল করেননি অ্যারন ফিঞ্চ। আর তাতেই থেমে যায় আয়ারের একার লড়াই।

স্রেয়াশ আয়ারই যা একমাত্র দিল্লির হয়ে প্রতিরোধ গড়েন পাঞ্জাবের বোলারদের সামনে। ৪৫ বলে ৫৭ রান করেন তিনি। ৫টি বাউন্ডারির সঙ্গে ১টি ছক্কা মারলেন তিনি। এছাড়া ২৪ রান করেন রাহুল তেওয়াতিয়া। পৃত্থি শা ১০ বলে ২২ রান করেন। গ্লেন ম্যাক্সওয়েল ১২ রান করেন।

পাঞ্জাবের হয়ে ২টি করে উইকেট নেন অঙ্কিত রাজপুত, অ্যান্ড্রু টাই, মুজিবুর রহমান। বারিন্দার স্রান নেন ১ উইকেট।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪৩ রান করে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাব। পায়ের ব্যথায় খেলতে পারেননি গেইল। তার বদলে লোকেশ রাহুলের সঙ্গে উদ্বোধনী জুটি গড়েন অ্যারন ফিঞ্চ। ক্যারিবিয়ান তারকার অনুপস্থিতিতে পাঞ্জাবের ব্যাটিং লাইন নাজুক হয়ে পড়েছিল।

দ্বিতীয় উইকেটে মায়াঙ্ক আগারওয়ালের সঙ্গে লোকেশের ৩৬ রানের জুটি ছিল সর্বোচ্চ। মিডল অর্ডারে ডেভিড মিলার ও করুন নায়ারের ৩১ রান ছিল কিছুটা স্বস্তির। ৩৪ রানের সেরা ইনিংস খেলেন নায়ার। মিলারের ব্যাটে আসে ২৬ রান। এছাড়া লোকেশ (২৩), আগারওয়াল (২১) ও যুবরাজ সিং (১৪) দুই অঙ্কের ঘরে রান করেন।

পাঞ্জাবের ব্যাটিং দুর্দশায় মূল ভূমিকা রাখেন দিল্লির লিয়াম প্লাঙ্কেট। তিন উইকেট নেন তিনি ৪ ওভারে মাত্র ১৭ রান দিয়ে। দুটি করে পান ট্রেন্ট বোল্ট ও আবেশ খান।

এর ফলে ৬ ম্যাচে পঞ্চম জয়ে ১০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে উঠল পাঞ্জাব। আর মাত্র ২ পয়েন্ট নিয়ে সবার শেষে দিল্লি।