• সোমবার, ২৮ মে ২০১৮, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
  • ||

পাকিস্তানকে মাটিতে নামাল নিউজিল্যান্ড

প্রকাশ:  ০৬ জানুয়ারি ২০১৮, ২০:৪০
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রিন্ট
বৃষ্টিবিঘ্নিত প্রথম ওয়ানডেতে ডাকওয়ার্থ-লুইস পদ্ধতিতে পাকিস্তানকে ৬১ রানে হারিয়েছে নিউজিল্যান্ড। কেন উইলিয়ামসনের সেঞ্চুরি আর টিম সাউদির বিধ্বংসী বোলিংয়ের তোপে কোনো প্রতিদ্বন্দ্বীতাই করতে পারেনি পাকিস্তান। এই জয়ে ৫ ম্যাচের সিরিজে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল স্বাগতিকরা।

চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে নিজেদের প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে ভারতের কাছে হেরেছিল পাকিস্তান। এরপর আর কোনো ওয়ানডে হারেনি সরফরাজ আহমেদের দল। জিতেছে টানা ৯ ম্যাচ। এরমধ্যে চিরশত্রুদের নাকানি-চুবানি খাইয়ে প্রথমবার চ্যাম্পিয়নস ট্রফির শিরোপা ঘরে তোলে তারা। পাঁচ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজে শ্রীলঙ্কাকে করে ধবলধোলাই।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতেই মার্টিন গাপটিলকে নিয়ে ৮৩ রান তোলেন কলিন মুনরো। ব্যক্তিগত ৫৮ রান করে মুনরো ফিরলেও গাপটিলকে নিয়ে রানের চাকা সচল রাখেন কেন উইলিয়ামসন। দলীয় ১৫৬ রানে ৪৮ করে ফেরেন গাপটিল। তবে কাণ্ডারিহয়ে থেকে যান কিউই অধিনায়ক। শেষ দিকে তাকে যোগ্য সহযোদ্ধার মতো সমর্থন দেন হেনরি নিকোলাস।

পাকিস্তান বোলাদের নাকানিচুবানি খাইয়ে হাফ-সেঞ্চুরি করে নিকোলাস সাজঘরের পথ ধরলেও দুর্দান্ত সেঞ্চুরি তুলে নেন উইলিয়ামসন। শেষ পর্যন্ত তার ১১৭ বলে ৮ চার ও ১ ছক্কায় ১১৫ রানের ইনিংসে স্কোর বোর্ডে ৩১৫ রান তোলে নিউজিল্যান্ড।

সফরকারীদের হয়ে হাসান আলি শিকার করেন সর্বোচ্চ ৩ উইকেট। একটি করে উইকেট ঝুলিতে ভরেন মোহাম্মদ আমির, রুম্মন রইস, ফাহিম আশরাফ ও ফখর জামান।

৩১৬ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে দলীয় ৫৪ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে বিপর্যয়ে পড়ে পাকিস্তান। এই পরিস্থিতিতে শাদাব খানকে নিয়ে লড়াই চালিয়ে যান ফখর জামান। তবে হার মানেন শাদাবও। পরে ফাহিম আশরাফকে নিয়ে খাদের কিনারা থেকে দলকে টেনে তোলার চেষ্টা করেন বাঁহাতি মারকুটে ওপেনার।

এক পর্যায়ে দলীয় স্কোর ৬ উইকেটে ১৬৬ হলে হানা দেয় বৃষ্টি। এতে খেলা বন্ধ হয়ে যায়। প্রায় এক ঘণ্টা বন্ধ থাকলে নিউজিল্যান্ডকে ৬১ রানে জয়ী ঘোষণা করেন আম্পায়াররা। বৃষ্টির কারণে পাকিস্তানের লক্ষ্য দাঁড়িয়েছিল ২২৮ । খেলা বন্ধ হওয়ার আগে ৮২ রানে অপরাজিত ছিলেন ফখর। তার সঙ্গে ১৭ রানে ক্রিজে ছিলেন ফাহিম।

এদিন পাকিস্তান শিবিরে হামলা করেন কিউই পেসার ট্রেন্ট বোল্ট ও টিম সাউদি। স্বাগতিকদের হয়ে সাউদি ৩ ও বোল্ট নেন ২ উইকেট।
/সম্রাট