• শনিবার, ২১ এপ্রিল ২০১৮, ৮ বৈশাখ ১৪২৫
  • ||
  • আর্কাইভ

১০ বছর আর ৩০২ ম্যাচ পর!

প্রকাশ:  ১২ জানুয়ারি ২০১৮, ১৬:২২
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রিন্ট

গত রাতে বার্সা কোচ ভালভার্দে নতুন এক ঘটনার জন্ম দিলেন ম্যাচের ৫৯ মিনিটে। যা মনে করিয়ে দিলো বার্সার সাবেক কোচ ফ্রাঙ্ক রাইকার্ডের সময়কে। রাইকার্ডের সময়ের সেই ঘটনায় হয়তো ধুলোবালি পড়ে গিয়েছিল। গত রাতে ধুলোবালি ঝেড়ে নতুন করে স্মরণ করিয়ে দিলেন সেই সময়টুকুকে।

কোপা ডেল রে'র শেষ ষোলোর দ্বিতীয় লেগে বিধ্বংসী রূপে হাজির হন লিওনেল মেসি। প্রথমার্ধের শুরুর দিকে দুই মিনিটের ব্যবধানে দুই গোল করেন এই আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। তবে বিরতির পরপরই মেসিকে তুলে নেন বার্সেলোনা কোচ আর্নেস্টো ভালভার্দে। ৩০০ ম্যাচেরও বেশি সময় পর প্রথমবারের মতো এক ঘণ্টা পেরোনোর আগে কোচের সিদ্ধান্তের কারণে কিং লিওকে মাঠ ছাড়তে হলো।

মেসির দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের দিনে সেল্টা ভিগোকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে জায়গা করে নেয় বার্সেলোনা। বার্সার হয়ে অপর তিনটি গোল করেন জর্ডি আলবা, লুইস সুয়ারেজ ও ইভান রাকিটিচ।

মেসি যেই দুর্দান্ত ছন্দে ছিলেন তাতে করে সমর্থকরা তার হ্যাটট্রিক দেখার জন্য অধীর আগ্রহে বসে ছিলেন। তবে ৫৯তম মিনিটে তাকে তুলে উসমান ডেম্বেলেকে মাঠে নামান ভালভার্দে। তাতে করে সমর্থকদের কিছুটা হলেও হতাশ হতে হয়।

তবে মেসিকে তুলে নেয়া যে ফুটবলীয় দৃষ্টিকোণ থেকে যথার্থ সিদ্ধান্ত ছিল সেটি বুঝতে কারো অসুবিধা হওয়ার কথা নয়। চলতি মৌসুমে টানা খেলার মধ্যে রয়েছেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। সেল্টা ভিগোর বিপক্ষে যখন ভালভার্দে মেসিকে তুলে নেন তখন বার্সেলোনা ৪-০ গোলে এগিয়ে ছিল। তাই কোচ দলের সেরা খেলোয়াড়কে পুরো সতেজ রাখার জন্যই তুলে নেন।

সর্বশেষ ৩০২ ম্যাচ আগে এমন ভাগ্য বরণ করতে হয়েছিল মেসিকে। ২০০৭ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর লেভান্তের বিপক্ষে বার্সেলোনার হয়ে চতুর্থ গোলটি করার পর কোচ ফ্রাঙ্ক রাইকার্ড মেসিকে তুলে দস সান্তোসকে মাঠে নামান।

সেই ম্যাচের পর মেসি অনেকবারই খেলার মাঝপথে মাঠ ছেড়েছিলেন। তবে সেটি হয়তো ইনজুরি কিংবা অন্য কারণে। এমনকি ৬০ মিনিটের পরও অনেকবার মাঠ ছেড়েছেন। তবে ১০ বছরেরও বেশি সময় পর এবারই প্রথমবারের মতো ৬০ মিনিট পেরোনোর আগে কোচের সিদ্ধান্তে মাঠ ছাড়েন মেসি।

/স ক

ব্র্যাডম্যান ওভালে চমক অর্জুনের, ব্যাটে-বলে দাপট শচিন পুত্রের