Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • রবিবার, ২৪ মার্চ ২০১৯, ১০ চৈত্র ১৪২৫
  • ||

পাক সীমান্তে ভারতীয় বিমান বাহিনীর ভয়ঙ্কর মহড়া

প্রকাশ:  ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২০:২২
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট icon

পুলওয়ামায় হামলা আরও একবার ভারতের জনগণের মধ্যে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে প্রতিশোধ স্পৃহা জাগিয়ে তুলেছে। রাগে ফুটছে সেনা। আর সেই রাগের বহিঃপ্রকাশই কি রাজস্থানের পোখরানে বিমান বাহিনীর মহড়া?

স্পষ্ট করে ভারতীয় বিমান বাহিনীর তরফে এই খবর সম্পর্কে কিছু না বলা হলেও সে দেশের যুদ্ধ বিশেষজ্ঞরা এমনটাই মনে করছেন। পাকিস্তান সীমান্তের কাছে ইতমধ্যেই মহড়া দিতে শুরু করে দিয়েছে ভারতীয় বিমান বাহিনী। ১৪০টি যুদ্ধবিমান ও হেলিকপ্টার এই মহড়ায় অংশ নিয়েছে।

ভারতীয় বিমান বাহিনীর প্রধান বিএস ধানোয়া জানান, ভারতীয় বিমান বাহিনী ‘উপযুক্ত উত্তর’ দেওয়ার জন্য তৈরি হচ্ছে। তবে মহড়া চলাকালীন তিনি একবারও পুলওয়ামায় সন্ত্রাসবাদী হামলার কথা উল্লেখ করেননি। শুধু বলেছেন, দেশবাসীকে তিনি ভারতীয় বায়ুসেনার শক্তি আর দেশের সুরক্ষা নিয়ে তার দায়িত্ব সম্পর্কে জানিয়ে রাখতে চান। দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় যে বিমান বাহিনী যে সবদিক থেকে প্রস্তুত তা সবার জানা দরকার।

এই মহড়ার নাম দেওয়া হয়েছে ‘বায়ু শক্তি ২০১৯’। মহড়ায় বিমান বাহিনীর অনুশীলন খতিয়ে দেখছেন বিশেষজ্ঞরা। অব্যার্থ নিশানায় বিদ্ধ করতে এই অনুশীলন চালানো হচ্ছে বলে খবর।

বিমান বাহিনী প্রধান জানান, যদি যুদ্ধ শুরু হয়, তাহলে চেষ্টা করা হবে যে পদ্ধতি অতীতে অবলম্বন করা হয়েছে, তা যেন ভবিষ্যতে না করা হয়। কারণ, সেই কৌশল শত্র‌ুদের জানা। তাই এই মহড়ার আয়োজন। জাগুয়ার, হারকিউলিস ও তেজসের মতো যুদ্ধবিমান এই মহড়া অংশ নিয়েছে।

এছাড়া রয়েছে সুখোই ৩০এস, মিগ ২১ বিসন, মিগ ২৭, মিগ ২৯, মিরাজ ২০০০, আই এল ৭৮ ও এ এন ৩২-এর মতো এয়ারক্র্যাফ্ট। লেজার প্রযুক্তির বোমা, রকেট লঞ্চারেরও মহড়া হয়েছে ‘বায়ু শক্তি ২০১৯’ এ। যাতে দিনে ও রাতে হেলিকপ্টার নির্দিষ্ট লক্ষে নিশানা করতে পারে, তার জন্যও হয়েছে অনুশীলন। মহড়ায় উপস্থিত ছিলেন সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত ও অন্য সেনা কর্মকর্তারা।

/অ-ভি

apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত