Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • বৃহস্পতিবার, ২৪ জানুয়ারি ২০১৯, ১১ মাঘ ১৪২৫
  • ||

জার্মানিতে নিজ কক্ষে বাংলাদেশি নারী ব্লগারের লাশ

প্রকাশ:  ২০ ডিসেম্বর ২০১৮, ১১:১৪
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট icon

জার্মানির রাজধানী বার্লিনের গেসুন্ড ব্রুনেন এলাকার নিজ বাড়ি থেকে এক বাংলাদেশি ব্লগার লেখিকার মরদেহ উদ্ধার করেছে দেশটির পুলিশ। নিহতের নাম তমালিকা সিংহ (২৪)। তিনি অর্পিতা রায় চৌধুরী নামেও পরিচিত ছিলেন।

মঙ্গলবার (১৮ ডিসেম্বর) বার্লিনের পুলিশ তমালিকার লাশ তার বাসভবন থেকে উদ্ধার করে, পুলিশের বরাত দিয়ে জার্মান পেন ক্লাবের একজন মুখপাত্র তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন।

বার্লিনে বসবাসরত এক বাংলাদেশি জানিয়েছেন, অর্পিতার প্রতিবেশী এক বাংলাদেশি কয়েক দিন ধরে তার বাড়িতে বাতি জ্বলতে না দেখে বিষয়টি ১৪ ডিসেম্বর পেন ক্লাবের স্থানীয় কর্মকর্তাদের জানান। এর চার দিন পরে মঙ্গলবার বার্লিন পেন ক্লাবের একজন স্বেচ্ছাসেবক ওই বাড়ির অন্য একটি চাবি দিয়ে দরজা খুলে ঢুকে অর্পিতার লাশ পড়ে থাকতে দেখেন। পরে পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। পুলিশ মঙ্গলবার রাত আটটার দিকে তার লাশ উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

জার্মান প্রবাসী বাংলাদেশি লেখকদের সূত্রে জানা যায়, তমালিকার গ্রামের বাড়ি বাংলাদেশের নেত্রকোনায়। তবে তিনি জার্মানি আসার আগে ঢাকায় বসবাস করতেন। এরপর জার্মান লেখকদের সংগঠন (পিইএন)-এর ব্যবস্থাপনায় নির্বাসিত লেখকদের জন্য দেওয়া বৃত্তি নিয়ে জার্মানিতে আসেন।

তিনি ব্লগে সমকালীন রাজনীতি ও ঘটনাপ্রবাহ নিয়ে লেখালেখি করতেন। এছাড়া জার্মান প্রবাসী আরেকজন বাংলাদেশী ব্লগার যোবায়ের সন্ধীর সঙ্গে যৌথভাবে নবযুগ নামে একটি ব্লগ পরিচালনা করতেন তমালিকা। সম্প্রতি অংশুমালী নামে একটি সাহিত্য ব্লগও শুরু করেন তারা।

তবে, তার মৃত্যুর রহস্য নিয়ে ময়নাতদন্তের আগে কোন মন্তব্য করতে নারাজ বার্লিন পুলিশ প্রশাসন। এদিকে সূত্র আরও জানায় মৃত্যুর আগে তিনি অবসাদগ্রস্থ ছিলেন সেই সাথে অপুষ্টি ও রক্ত শুন্যতাসহ নানাবিধ স্বাস্থ্য সমস্যায় ভুগছিলেন।

উল্লেখ্য, তরুণ এই মুক্তমনা লেখক এই বছর অর্থাৎ ২০১৮ সালের শুরুর দিকে জার্মানির গবেষণা প্রতিষ্ঠান পেন এর আমন্ত্রণে জার্মানিতে আসেন। ময়নাতদন্ত ও অন্যান্য প্রশাসনিক প্রক্রিয়া শেষে তমালিকা সিংহের মরদেহ তার নিজ বাড়িতে পাঠানোর ব্যবস্থ্যা গ্রহণ করার আশ্বাস দিয়েছে গবেষষা প্রতিষ্ঠান পেন। তবে কি কারণে তার মৃত্যু হয়েছে তা নিশ্চিত করে বলতে পারছে না কেউ।

পুলিশের বরাত দিয়ে জানানো হয়, তমালিকার মৃতদেহ ঘর থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। তবে তার মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে এখনও কোনও মন্তব্য করেনি পুলিশ।

পিবিডি/আরিফ

জার্মানি,ব্লগার,মরদেহ
apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত