Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০১৯, ৭ চৈত্র ১৪২৫
  • ||

জে কে রাওলিংয়ের সাফল্যের পাঁচ সূত্র

প্রকাশ:  ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৫:১৯
রবিউল কমল
প্রিন্ট icon

জে কে রাওলিং একজন ব্রিটিশ লেখিকা। তিনি ‘হ্যারি পটার’ সিরিজ দুনিয়া মাতিয়েছেন। পৌঁছেছেন খ্যাতির শীর্ষে। আজ জেনে নিন তার সাফল্যের পাঁচটি সূত্র। লেখাটি নো স্টার্টআপ থেকে ভাষান্তর করা হয়েছে।

ব্যর্থতাকে ভয় পেলে চলবে না

একসময় পাণ্ডুলিপি নিয়ে প্রকাশকদের দ্বারে দ্বারে ঘুরেছিলেন জেকে রাওলিং। আপনি হয়তো জানেন না, প্রায় ১২ জন প্রকাশক জে কে রাওলিংকে ফিরিয়ে দিয়েছিলেন। অথচ তিনি ‘হ্যারি পটার’ দিয়ে বিশ্বের সফল লেখকেদের কাতারে নাম লেখান। তার মতে, ব্যর্থতা মানুষের জীবনকে চিনতে শেখায়। অপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলো ছেঁটে ফেলে দেয়। যেটা হতে চাই সেটা না পারাটা খারাপ কিছু না। তাই ব্যর্থতাকে ভয় পেলে চলবে না। একাগ্রতা নিয়ে লেগে থাকলে নিজের পছন্দের জায়গাটাতে পৌঁছানো যায়।

সমালোচনাকে হ্যাঁ বলুন

সমালোচনা ক্যারিয়ারের জন্য ইতিবাচতক। সমালোচনাকে গ্রহণ করুন আর সমালোচকের প্রতি বিনয়ী হতে হবে। সমালোচনা তখনই আপনাকে করবে যখন আপনি অন্যকে ছাড়িয়ে যাবেন। অন্যের সমালোচনা প্রমাণ করে আপনি কিছু হয়েছেন বা হতে যাচ্ছেন। তাতে বাধা দিতে আপনার ভুল নিয়ে সমালোচনা হচ্ছে। এই সুযোগে নিজের ভুলগুলো চিনে নিয়ে সমাধান করুন। তাহলে সফলতা ধরা দেবে।

ঘুম ভাঙুক সকালে

জীবনের জন্য সকালের সময়টুকু খুবই জরুরি। সকালে না উঠলে আপনি বুঝতেই পারবেন না আমাদের পৃথিবীটা কত সুন্দর। এজন্য আপনাকে সকালে উঠতে হবে। সকাল আপনাকে বেঁচে থাকার স্বপ্ন বাড়িয়ে দেবে কয়েকগুণ। খোঁজ নিয়ে দেখলে জানতে পারবেন পৃথিবীর সফল মানুষরাই সকালেটাকে উপভোগ করেছেন এবং এই সময়টাকে সর্বোচ্চ কাজে লাগিয়েছেন। আমিও আমার সকাল উপভোগ করি। এই সময়ে আমি আমার প্রিয় জায়গা লেখার টেবিলে কাটাই। তারপরে সারাদিনের প্ল্যান করে ফেলি।

স্বপ্ন বেঁচে থাকুক

স্বপ্ন দেখুন এবং নিজের স্বপ্নকে বাঁচিয়ে রাখুন। কল্পনাশক্তি বাড়িয়ে তুলুন। কারণ আপনার কল্পনা আপনাকে অনেক অদেখাকে দেখিয়ে দেবে। অসম্ভব কোনো কিছুকে অর্জন করতে হলে আগে কল্পনাপ্রবণ হতে হয়। বড় স্বপ্ন দেখার সাহস করতে হয়।

ভালোবাসুন নিজেকে ও নিজের কাজ

নিজেকে ভালোবাসতে হবে। নিজেকে ভালোবাসতে পারলেই নিজের কাজ ভালোবাসা যায়। আপনি কী হতে চান সেটা আপনাকেই ঠিক করতে হবে। তারপর সেটাকে ভালোবেসেই এগিয়ে যেতে হবে। পছন্দের কাজ ভালোবাসতে পারলেই কেবল নিজের সেরাটা দেওয়া সম্ভব। আর নিজের কাজ ভালোবাসলে কাজে আনন্দ খুঁজে পাওয়া যায়।

জে কে রাওলিং,হ্যারি পটার
apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত