Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ৯ ফাল্গুন ১৪২৫
  • ||

সেই হাসনাত নেই চার্জশিটে

প্রকাশ:  ২৩ জুলাই ২০১৮, ১৬:২২ | আপডেট : ২৩ জুলাই ২০১৮, ১৭:২৬
পূর্বপশ্চিম ডেস্ক
প্রিন্ট icon
হামলার পরদিন আর্টিজান রেস্টুরেন্টের ছাদে দু্ই যুবকের সঙ্গে হাসনাত করিম (সাদা গেঞ্জি পরা)

গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে জঙ্গি হামলার ঘটনায় নর্থ সাউথ ইউনির্ভার্সিটির প্রাক্তন শিক্ষক হাসনাত করিমকে চার্জশিট থেকে বাদ দেয়া হয়েছে। কারণ হিসেবে বলা হয়েছে এই হামলার ঘটনায় তার কোনো সম্পৃক্ততা খুঁজে পায়নি পুলিশ। তদন্ত সংস্থা ওই হামলার ঘটনায় মোট ২১ জনের সম্পৃক্ততা পেয়েছে। যাদের মধ্যে জীবিত আছেন আট জন।

২০১৬ সালের ১ জুলায়ের ওই হামলায় হাসনাত করিমের জড়িত থাকার নাম উঠেছিল জোড়ালোভাবে। হামলার দিনে তিনি এবং তার স্বজনরা রেস্টুরেন্টে উপস্থিত ছিলেন। এক কোরিয়ান নাগরিকের ধারণ করা ভিডিওতে দেখা যায় কয়েকজন তরুণের সঙ্গে হাসনাত করিম রেস্টুরেন্টের ছাদে বসে মিটিং করছে। তারপর থেকে তার জড়িত থাকার সম্ভাবনা আরও জোড়ালো হয়।

জঙ্গি হামলার পর সেনা অভিযানে উদ্ধার জঙ্গিদের মধ্যে ‘রহস্যজনক’ আচরণের কারণে হাসনাত করিমকে গোয়েন্দা কার্যালয়ে নেওয়া হয়। ঘটনার কয়েকদিন পর হাসনাতকে ছেড়ে দেওয়ার কথা পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হলেও তাকে আর ছাড়া হয়নি।

পরে ৩ আগস্ট রাজধানীর একটি বাড়ি থেকে হাসনাত করিমকে ৫৪ ধারায় সন্দেহভাজন হিসেবে গ্রেপ্তার করা হয়। ৪ আগস্ট প্রথম দফায় হাসনাতের আট দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। রিমান্ড শেষে ১৩ আগস্ট হলি আর্টিজান মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। ২৪ আগস্ট হাসনাত করিমের জামিনের আবেদন নাকচ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেয় আদালত। হাসনাত করিম বর্তমানে কাশিমপুর কারাগারে রয়েছেন।

তবে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয়ার পর সোমবার দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে ঢাকা মহানগর পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্স ন্যাশনাল ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম নিশ্চিত করেন, তারা যাদের বিরুদ্ধে প্রতিবেদন দিয়েছেন, তাদের মধ্যে হাসনাত করিমের নাম নেই।

/আরকে

গুলশানের হলি আর্টিজান,হাসনাত করিম,কাশিমপুর কারাগার,নর্থ সাউথ ইউনির্ভার্সিটি,holey artisan
apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত