Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০১৯, ৭ চৈত্র ১৪২৫
  • ||

ফিটনেস পরীক্ষায় আশরাফুলের এত উন্নতি!

প্রকাশ:  ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২৩:১৫
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রিন্ট icon

ন্যাশনাল ক্রিকেট লিগ এনসিএল দিয়ে শুরু হচ্ছে ঘরোয়া মৌসুম। অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে তা মাঠে গড়াবে। প্রথমবারের মতো ঘরোয়া ক্রিকেটে ফিটনেস পরীক্ষার প্রচলন করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিসিবি। গতকাল মিরপুরে ফিটনেসের পরীক্ষা দিয়েছেন ঢাকা মেট্রো ও ঢাকা বিভাগের ক্রিকেটাররা। যেখানে অভাবনীয় সাফল্য দেখিয়েছেন মোহাম্মদ আশরাফুল।

ঢাকা মেট্রোর ক্রিকেটারদের মধ্যে সর্বোচ্চ ১১.৪ পয়েন্ট তুলেছেন আশরাফুলই। ২০ মিটারের শাটল রানিংয়ের মাধ্যমে নির্ণয় করা হয় বিপ টেস্টের ফলাফল। ফিটনেসে আশরাফুলের উন্নতি দেখে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন দায়িত্বপ্রাপ্ত ট্রেনার।

গত মাসে সব ধরণের ক্রিকেট থেকে নিষেধাজ্ঞা উঠে গেছে। ফিটনেস আর পারফরম্যান্স দেখাতে পারলে আবার বিবেচিত হবেন জাতীয় দলের জন্য। লিগ শুরু হলেই পরখ হতে থাকবে পারফরম্যান্স। তার আগের কাজটা যে ঠিকঠাক করেছেন, আশরাফুল সেটার প্রতিফলন দিলেন ফিটনেস টেস্টের ফলাফলেই! ফিটনেসে উন্নতির জন্য বেশ কিছুদিন ধরেই আশরাফুল ডায়েট করছেন। ভাত খাওয়ার পরিমাণ কমিয়েছেন। তিনি মনে করেন খাদ্যাভ্যাস পরিবর্তন, নিয়মিত অনুশীলন ও মানসিক দৃঢ়তার কারণেই বিপ টেস্টে সন্তোষজনক মার্কস পেয়েছেন।

গত তিন মাস ধরেই প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম, ন্যাশনাল লিগে প্রথম ম্যাচ থেকে পুরোপুরি ফিট থাকতে চেয়েছিলাম। চেয়েছিলাম আমার ফিটনেস লেভেলটা যেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের মানের হয়। ১৩ বছর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলেছি, অধিনায়কত্বও করেছি। আমি জানি আসলে কোন লেভেলে যেতে হয়। সেজন্য মানসিকভাবে আপনাকে অনেক শক্তিশালী হতে হয়, শারীরিক ট্রেনিংও করতে হয়। এই বিপ টেস্টে ১১.৪ পাওয়া বা এর জন্য গত আড়াই মাস ট্রেনিং করেছি। সেটা আমার জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ ছিল।

ঢাকা মেট্রোর আরও দুই ক্রিকেটার ১১.৪ পয়েন্ট অর্জন করেছেন। তরুণ দুই ক্রিকেটার জাকির হাসান ও সৈকত আলীর সমান পয়েন্ট তুলতে পেরে তাই খুশি আশরাফুল, শুধু এবার না, ছোটবেলা থেকেই আমার ফিটনেস সেরা পাঁচে থাকত, বাংলাদেশ দলে যখন ছিলাম। মানসিকভাবে শক্ত হলে এটা সম্ভব। ফিজিক্যাল কাজও করতে হবে এর জন্য। কাজও করেছি এবং মানসিকভাবে শক্তও ছিলাম। আমি যে স্বপ্নটা দেখেছি, সেটা বিশ্বাস করেছি। তখন আসলে সব সম্ভব হয়।

apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত