Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • বৃহস্পতিবার, ২৪ জানুয়ারি ২০১৯, ১১ মাঘ ১৪২৫
  • ||

কেমন যাবে ২০১৯?

প্রকাশ:  ০১ জানুয়ারি ২০১৯, ১৯:২০ | আপডেট : ০১ জানুয়ারি ২০১৯, ২০:১২
জ্যোতিষজ্ঞ মহাজন মাররখ
প্রিন্ট icon

রাশি নিয়ে রয়েছে নানা ভাবনা। এটাকে অনেকে বিশ্বাস করেন আবার অনেকে এটাকে বিশ্বাস করেন না। ২০১৮ সালটা অনেকের হয়তো খারাপ গেছে আবার অনেকের ভালো গেছে। কিন্তু ২০১৯ সালটা কেমন যাবে এ নিয়ে অনেকের ভিন্ন মত থাকতে পারে।

রাশিচক্রের উপর নির্ভরতা নয়, কারণ তা কেবল সম্ভাবনার কথাই বলে।

শুরুতেই জেনে নেওয়া যাক নতুন বছরে বাংলাদেশ কেমন যাবে? জন্মলগ্নে ধনু রাশিতে রবির অবস্থান বাংলাদেশকে পৃথিবীর বুকে দ্রুত আর্থিক দেশ হিসেবে চিহ্নিত করেছে, যা বিগত কয়েক বছরে প্রবৃদ্ধির হার বৃদ্ধি তার প্রমাণ। বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশ তলাবিহীন ঝুড়ির দেশ থেকে সম্মানজনক অবস্থানে উঠে এসেছে।

জন্মলগ্নে ধনু রাশিতে রবির অবস্থান বাংলাদেশকে পৃথিবীর বুকে দ্রুত আর্থিক দেশ হিসেবে চিহ্নিত করেছে, যা বিগত কয়েক বছরে প্রবৃদ্ধির হার বৃদ্ধি তার প্রমাণ। বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশ তলাবিহীন ঝুড়ির দেশ থেকে সম্মানজনক অবস্থানে উঠে এসেছে।

মেষ রাশি :

রাশিচক্রের প্রথম রাশি হলো মেষ। ২০১৯ সালের শুরু থেকেই মেষের ওপর ইউরেনাসের অবস্থান এবং রাশ্যাধিপতি মঙ্গলের দৃষ্টি রয়েছে। মেষ রাশির জাতক-জাতিকারা ২০১৯ সালজুড়ে স্বাস্থ্য সমস্যায় ভুগতে পারেন। উদরপীড়া, গুহ্যরোগ, শ্লেষ্মাঘটিত ব্যাধি ও নেত্ররোগের জন্য মাঝেমধ্যে কিছু কষ্টভোগ করতে হতে পারে। কর্মক্ষেত্রে বছরের শুরুতে সমস্যার সম্মুখীন হলেও পরবর্তী সময়ে আপনার ভাগ্য সহায় থাকবে।ধন উপার্জন হবে অল্প। সঞ্চয়ের পরিমাণ কম হলেও আয়:ব্যয়ের সমতা বজায় থাকবে বলে মনে হয়। আয়ের পরিমাণ কম হলেও ঋণগ্রস্ত হয়ে পড়তে হবে না। যারা চাকরির সঙ্গে যুক্ত আছেন তাদের আর্থিক চিন্তায় মাঝে মাঝে ব্যাকুল হতে হবে। ছোট ব্যবসায়ীগণও অনেক সমস্যার সন্মুখীন হবেন।

পরিবারের সঙ্গে দারুন আনন্দে কাটাবেন। বছরের শুরুটা বেশ ভালোই যাবে। রবি ও বৃহস্পতির শুভ যোগ রয়েছে। বাড়ি-গাড়ি, ধনসম্পদ লাভের যোগ আছে। কর্মক্ষেত্রে নানা অশান্তির মধ্যেও আপনি আপনার কাজ হাসিল করবেন। বসের সুনজরে থাকবে। পরিশ্রমী আর বিচক্ষণতার জন্য আপনি অন্যদের থেকে অনেকটাই আলাদা। তবে বছরের শেষের দিকে আপনি চাকরি খোয়াতে পারেন। প্রেমিক-প্রেমিকাদের জন্য এই বছরটা বেশ শুভ বলেই মনে হচ্ছে। কিছু সমস্যা আছে। সেই সব মিটে যাবে, যদি আপনার সঙ্গী বা সঙ্গিনী মধ্যে বোঝাপড়াটা ভালো থাকে। শরীরে দিকে বিশেষ খেয়াল রাখুন। সেপ্টেম্বর-নভেম্বর মাসে অস্ত্রোপচার হতে পারে। পড়ুয়াদের ক্ষেত্রেও ভালো। অমনোযোগীরা পড়াশোনায় মন দিন। যাঁদের রাহু ও কেতুর যোগ রয়েছে, তাঁরা অবশ্যই সাবধানে থাকবেন। সন্তানদের প্রতি নজর দিন। শনির দশা চললে কর্মক্ষেত্রে ঝামেলা, গৃহে অশান্তি লেগেই থাকবে।

বৃষ রাশি :

বৃষ রাশির জাতকদের চোখের দৃষ্টি প্রশান্ত, নির্মল ও স্থির হয়। বৃষরা বিপরীত লিঙ্গের প্রতি দারুণভাবে আকৃষ্ট হয়। তারা সময়ের মতোই ধৈর্যশীল আর বনানীর মতোই গভীর এবং নির্ভর করার মতো শক্তিমান, যে শক্তি দিয়ে সে পর্বতও সরিয়ে দিতে পারে। ২০১৮ সাল বৃষ রাশির জাতক/জাতিকার শরীর-স্বাস্থ্য খুব একটা ভালো নাও যেতে পারে। জন্ডিস, হেপাটাইটিস অথবা হৃদযন্ত্রের দুর্বলতাজনিত কোনো সমস্যায় ভুগতে পারেন। কর্মপরিবেশ মোটামুটি অনুকূল থাকবে।

২০১৯-এ বৃষ রাশির জাতক-জাতিকাদের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হবে। কর্মজীবনে উত্থান-পতন থাকবে। আপনার স্বাস্থ্য একটু দুর্বল থাকবে এবং এই কারণে এই বছর স্বাস্থ্য সম্পর্কে বেশি সচেতনতা প্রয়োজন। আপনার খাদ্যের প্রতি বিশেষ খেয়াল রাখবেন। স্বাস্থ্যকর খাবার খাবেন। ২০১৯ এর গণনা অনুযায়ী, এই বছর আপনি দীর্ঘস্থায়ী রোগে ভুগবেন। বছরের প্রথমদিকে আপনি কর্মক্ষেত্রে সমস্যার সম্মুখীন হবেন। কর্মজীবনে উত্থান-পতন থাকবে। কঠোর পরিশ্রম করলে ভালো ফল পাবেন।

দুঃসময়ে বন্ধুদের সাহায্য পাবেন। পুরনো বন্ধুদের সঙ্গে হঠাত্‍ দেখা হয়ে যেতে পারে। কর্মক্ষেত্রের পরিবেশে মানিয়ে নিতে পারবেন না। আবার চাকরিও ছাড়তে পারবেন না। অন্যদিকে, আর্থিক দিকটাও ব্যালান্স করে চলতে হবে। কোনও দিকেই আপনি কূল খুঁজে পাবেন না। এইসবের মূলে রয়েছে শনি ও রাহুর দশা। শরীর ঠিক যাবে না। পেটের রোগ, চর্মরোগের নানান সমস্যা দেখা দিতে পারে। সঙ্গী বা সঙ্গিনীকে নিয়ে বেশিই চিন্তা করছে। বিবাহের শুভ যোগ আছে। সামাজিক অনুষ্ঠানগুলিতে যোগ দিন। মজা-আনন্দ করুন। সকলের সঙ্গে কথাবার্তা বলুন। মন ভালো থাকবে।

এই বছর আপনি আপনার কাজ নিয়ে দায়িত্বশীল থাকবেন এবং কর্মজীবনে আপনি অনন্য ক্ষেত্র তৈরি করবেন কঠিন পরিশ্রম করে। অর্থনৈতিক জীবন স্বাভাবিকের থেকে ভালো থাকবে। আপনার আর্থিক অবস্থা উন্নত হবে, কিন্তু তাছাড়াও আপনার ব্যয় বৃদ্ধি পাবে। যদি আপনি আপনার অপ্রয়োজনীয় ব্যয় রোধ না করেন তাহলে আপনার বর্তমান আর্থিক অবস্থা বিনষ্ট হতে পারে।যাই হোক, আপনার উপার্জন এই বছর সম্ভবত বৃদ্ধি পাবে। আয়ের নতুন উৎসস্থল সৃষ্টি হবে। এপ্রিলের মাঝামাঝি থেকে মে মাসের মাঝামাঝি পর্যন্ত, আর্থিক অবস্থা শক্তিশালী থাকবে এবং জুন মাস অবধি অবস্থা একইভাবে ভালো থাকবে।

বছরের মধ্যভাগের পরে আর্থিক দিক অধিকতর ভালো যেতে পারে। প্রণয় সংক্রান্ত বিষয়াদিতে বছরের দ্বিতীয়ার্ধে অগ্রগতির সম্ভাবনা আছে। নিঃসন্তান দম্পতিদের এ বছর সন্তান লাভের যথেষ্ট সম্ভাবনা রয়েছে। দাম্পত্য সম্পর্ক মোটামুটি ভালো যাবে। অবিবাহিতদের বিয়ের ব্যাপারে বছরের দ্বিতীয়ার্ধে অগ্রগতি হতে পারে। কর্মসংস্থানার্থে বিদেশযাত্রা জন্য বছরের দ্বিতীয়ার্ধে হঠাত্ কোনো সুযোগ সৃষ্টি হতে পারে। এ বছর তীর্থ যাত্রার সুযোগ পেতে পারেন।

মিথুন রাশি :

মিথুন রাশির পুরুষ বা নারীকে বেশির ভাগ সময় রক্ষণশীল হিসেবে দেখা যায়। মিথুনেরা সাধারণত অন্যদের তুলনায় আকর্ষণীয়ভাবে চিকন, লম্বা, প্রাণশক্তিপূর্ণ হয়। লেখালেখির সঙ্গে মিথুনের একটা অদ্ভুত যোগাযোগ রয়েছে। এই রাশি নিজেই লেখালেখির ক্ষমতাকে নিয়ন্ত্রণ করে। তাই প্রায় সব মিথুনই যেকোনো একটা বুদ্ধিদীপ্ত মন্তব্য করে বুদ্ধিমত্তার সঙ্গে আরও কিছু শব্দ সহজেই জুড়ে দিতে পারেন।

আপনি পরিবারের প্রতি দায়িত্বশীল। বৃহস্পতি আপনার সহায় থাকায় পরিবারকে কেউ ক্ষতি করতে পারবে না। বাড়ি-গাড়ি সবই ২০১৯-এর মধ্যে হওয়ার সুযোগ রয়েছে। তবে কোনও এক অজ্ঞাত কারণে প্রিয়জনদের সঙ্গে ঝুটঝামেলায় জড়িয়ে পড়তে পারেন। বছরের মাঝামাঝি সময়ে পরিবারকে নিয়ে কোথাও ঘুরে আসতে পারেন। কর্মক্ষেত্রে আপনার কাজের সুখ্যাতি হবে। পারলে আপনি আরও ভালো সংস্থায় বদলি হতে পারেন। এপ্রিল থেকে জুন মাসের মধ্যে কেরিয়ারের সবচেয়ে ভালো সময় কাটবে। আপনার কাজই আপনাকে শীর্ষে পৌঁছোবে। মিথুন রাশির জাতকদের মধ্যে যাঁদের রাহুর যোগ রয়েছে, তাঁদের খুব সাবধানে থাকতে হবে। মানসিক ও শারীরিক দিক থেকে আপনি একদমই ভালো থাকবেন না। রাহুর যোগ থাকাতে বৃহস্পতির যোগ কেটে যেতে পারে। অজান্তে নানান অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটিয়ে ফেলবেন। স্বার্থপরতা, অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসী, গুরুগম্ভীর ভাবমূর্তির জন্য বৈবাহিক জীবন ভেঙে যেতে পারে। কেতুর যোগ থাকলে এ বছর বিয়ে না করাই ভালো।

এ বছর একাধিকবার বিদেশ সফরের সুযোগ পেতে পারেন। প্রেম-রোমান্স প্রভৃতি বিষয়ের ক্ষেত্রে বছরটি শুভ সম্ভাবনাময়। তবে কোনো ধরনের পরকীয়ার সম্পর্কে জড়ালে খারাপ কোনো পরিণতির সম্মুখীন হওয়ার আশঙ্কা আছে। যৌথ ও অংশিদারী ব্যবসায় সতর্ক থাকার চেষ্টা করুন। কারো সঙ্গে নতুন কোনো চুক্তি সম্পাদনের ক্ষেত্রেও সাবধানতা অবলম্বন করুন। এ সংক্রান্ত কোনো কাগজপত্রে স্বাক্ষর করার আগে ভালোভাবে দেখে নিন। অবিবাহিতদের বিয়ের ব্যাপারে কোনো ধরনের বাধার সৃষ্টি হতে পারে। ফলে বিবাহ বিলম্বিত হওয়ার আশঙ্কা আছে। রাজনীতি বা জনসম্পৃক্ত কাজে জড়িতদের জন্য বছরের শেষ দিক ভালো যাবে। এ বছর কোনো ঝুঁকিপূর্ণ সিদ্ধান্ত না নিলেই ভালো করবেন।

কর্কট রাশি :

জীবনকে পুরোপুরি উপভোগের সবগুলো পথ বুঝি কর্কটই সবচেয়ে ভালো জানে। অন্য কোনো রাশিই কর্কটের মতো এতটা কৌতুকপ্রিয় নয়। আর তার শান্ত, সুবোধ বহিরাবরণ ভেদ করে মজার মানুষটা যদি একবার দুঃসাহসিকভাবে জেগে ওঠে, তাহলে তো কথাই নেই।

২০১৯ সালে কর্কট রাশির অর্থনৈতিক বিষয় এবং কর্মজীবনের ক্ষেত্রে অনুকূল থাকবে। যাই হোক, প্রথমে স্বাস্থ্যের প্রতি যত্ন নেওয়া প্রয়োজন কারণ এই বছরে আপনার স্বাস্থ্যের ওঠানামা পরিলক্ষিত হবার সম্ভাবনা রয়েছে। যদি কর্মজীবনের কথা বলেন তাহলে পেশাদারদের কাজে পদন্নোতি হতে পারে। ফ্রেব্রুয়ারি থেকে মার্চ এবং নভেম্বর থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত, ব্যবসা ও চাকরি ক্ষেত্রে ভালো খবর পেতে পারেন।

এই সময় অর্থাৎ মার্চের পরে, আপনি নতুন ব্যবসা শুরু করতে পারেন বা পুরানো ব্যবসা বাড়াতে পারেন। এবার আপনার অর্থনৈতিক জীবন সম্পর্কে আলচনা করা যাক। এই বছর আপনার আর্থিক অবস্থা শক্তিশালী থাকবে, কারণ এই বছর আপনার অনেক আর্থিক সুবিধা পাবার সম্ভাবনা রয়েছে।

সিংহ রাশি :

সিংহ রাশির মানুষ অতিমাত্রায় বিশ্বাসপ্রবণ। তারা শত্রুর কথাও বিশ্বাস করে। কোনোরকম যাচাই-বাছাই করে দেখে না। একের পর এক সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করতে থাকে এবং অসহনীয় এক পরস্থিতি তারা নিজেরাই সৃষ্টি করে। বিচারক হিসেবে এরা ভালো নয়, কারণ গায়ের জোর ও আবেগের বশে অনেক সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করে। সবচেয়ে অদ্ভুত ব্যাপার হলো, যুক্তি দিয়ে বিবেচনা করার ক্ষেত্রে তারা বেশ পারদর্শী। কারও জীবনের খুঁটিনাটি সমস্যাগুলোও তারা বিচক্ষণতার সঙ্গে মোলায়েম করে তুলতে সক্ষম।

নতুন বছর আপনার বেশ ভালোই কাটবে। বৃহস্পতি ও রবির যোগ থাকায় পরিবারে শুভ যোগ বজায় থাকবে। পরিশ্রমের বিকল্প নেই, এ কথা আপনি রন্ধ্রে রন্ধ্রে বিশ্বাস করেন। আর সেটা আপনি করে দেখানও। কাজের জায়গায় নিজের প্রতিপত্তি বজায় রেখে এগিয়ে যাবেন। বাড়ি-গাড়ির স্বপ্ন পূরণ হয়েও যেতে পারে নতুন বছরেই। চিন্তা নেই টাকা-পয়সারও। সঞ্চয় করুন। লোন নিয়ে বাড়ি-গাড়ি কেনার যোগ রয়েছে।। নতুন বছরে শেয়ার নাও কিনতে পারেন। পরিবার ও বিবাহিত জীবন আপনার শান্তিতেই থাকবে। ইগো দুরে সরিয়ে রাখুন। তাহলেই সব ঠিকঠাক থাকবে। মন চাঙ্গা রাখতে সকালে যোগ-ব্যায়াম করতে পারেন। পড়ুয়াদের জন্যও ভালো সময় ২০১৯। শনির দোষ কাটতে পারে এই নতুন বছরে। কিছু সমস্যা দেখা দিতে পারে বছরের তৃতীয় মাস থেকে। কর্মক্ষেত্রে প্রতিযোগিতার মুখোমুখি হতে হবে। দুশ্চিন্তা, অবসাদ আপনাকে বিব্রত করবে।

আর্থিক দিক ভালো যাবে। কর্মসংস্থানের জন্য বিদেশযাত্রার প্রচেষ্টায় কেউ কেউ সাফল্য পেতে পারেন। প্রেম-রোমান্স প্রভৃতি বিষয়ে বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করুন। সন্তানের স্বাস্থ্যগত ব্যাপারে দুশ্চিন্তাগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা আছে। চাকরিজীবীদের জন্য বছরটি সম্ভাবনাময়। সম্ভাব্য ক্ষেত্রে পদোন্নতির যোগ আছে। বেকারদের কর্মসংস্থান প্রচেষ্টায় সাফল্য আসতে পারে।তবে বিবাহযোগ্য সন্তানের বিয়ের ব্যাপারে কোনো ধরনের জটিলতার সম্মুখীন হতে পারেন। বিদ্যার্থীদেরকে এ বছর পড়াশোনার ব্যাপারে বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। অন্যথায় এ ক্ষেত্রে প্রত্যাশিত সাফল্য বাধাগ্রস্ত হতে পারে। ধর্ম-কর্মের প্রতি অনুরাগ বৃদ্ধি পাবে। অনেকের তীর্থযাত্রার আকাঙ্ক্ষা এ বছর পূর্ণ হতে পারে।

কন্যা রাশি :

কন্যারা শির জাতক-জাতিকারা সামাজিক মেলামেশায় স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে না। কন্যা হলো সতীত্বের প্রতীক, কিন্তু আক্ষরিকভাবে এটা বুঝে নেওয়া ঠিক হবে ২০১৮ সাল কন্যা রাশির জাতকের আর্থিক দিক ভালো যাবে। আয়-উপার্জন বৃদ্ধি পেতে পারে। অনাকাঙ্ক্ষিত ব্যয় বৃদ্ধির আশাঙ্কা রয়েছে। বছরের প্রথম দিকে ছোটভাই বোনদের সঙ্গে সম্পর্ক ভালো থাকবে। কাজ কর্মেতাদের সহযোগিতা লাভের সম্ভাবনা আছে। মাতৃস্বাস্থ্য খুব একটা ভালো যাবে না। অসুস্থ মায়ের শরীর স্বাস্থ্যের ব্যাপারে সারা বছরই দুশ্চিন্তাগ্রস্ত থাকতে পারেন। পিতৃ স্বাস্থ্য মোটামুটি ভালো থাকবে। প্রেম-রোমান্স প্রভৃতির ব্যাপারে সতর্কতার সঙ্গে এগোতে হবে। অন্যথায় প্রেম-ভালোবা সামন-বেদনার কারণ হতে পারে। সন্তানের স্বাস্থ্য গত ব্যাপারে ও উদ্বেগ-উত্কণ্ঠা দেখা দিতে পারে।

খুব একটা ভালো সময় যাবে না আপনার। পরিবারের নানা ঘটনাকে কেন্দ্র করে আপনি মানসিকভাবে ভেঙে পড়তে পারেন। বাড়ি বদলানোর কথা ভাবতে পারেন। ফেব্র‌ুয়ারি থেকে আগস্ট মাস পর্যন্ত সমস্যা আরও বাড়তে পারে। কর্মক্ষেত্রেও আপনার উন্নতি নেই। ধারাবাহিক অবনতিতে আপনি চাকরিও খোয়াতে পারেন। আপনি চট করে সকলকে বিশ্বাস করে ফেলেন। এটা করবেন না। তবে আপনি হাল ছাড়ার পাত্র বা পাত্রী নন। তাই অন্ধকারে পড়ে গেলেও আলোর দিশা আপনি ঠিক খুঁজে বের করবেনই। আর্থিক দিক থেকে আপনার চিন্তা নেই। ফ্ল্যাট-বাড়ির জন্য লোন নিতে পারেন। শরীর মোটামুটি যাবে। পেটের রোগে ভুগতে হতে পারে। হঠাত্‍ দুর্ঘটনায় আপনি বড়সড় চোট পেতে পারেন। পরীক্ষায় ভালো ফলাফলের আশা করতে পারেন পড়ুয়ারা। যাঁরা এখনও চাকরি পাননি, তাঁদের নতুন বছরে কোনও ভালো সুযোগ আসতে পারে। রাহুর যোগ থাকায় আপনি কোনও কাজের ফলাফল ভালো পাবেন না।

। উচ্চ শিক্ষার্থীদের জন্য বছরটি অনুকূল থাকবে। প্রাইজবন্ডে বা এধরনের বিনিয়োগে সুফল পেতে পারেন। জ্যেষ্ঠ ভ্রাতা-ভগ্নিদের কেউ কোনো জটিল ব্যাধিতে আক্রান্ত হতে পারেন। এবছর অপ্রত্যাশিত কোনো সূত্র থেকে অর্থপ্রাপ্তির সম্ভাবনা আছে। বছরের শেষ দিকে বিদেশ যাত্রার উদ্যোগে সাফল্য পেতে পারেন। কর্মস্থলে বিপরীত লিঙ্গের কারো সহযোগিতা পেতে পারেন। সামগ্রিকভাবে কর্মপরিবেশ অনুকূল থাকবে। বেকারদের কর্মসংস্থান প্রচেষ্টায় সাফল্যের সম্ভাবনা আছে।

তুলা রাশি :

তুলা জাতকেরা খুবই বুদ্ধিমান। একই সঙ্গে তারা সরল ওবটে। তাই সহজেই এরা অন্যের প্রতারণার শিকার হয়। এরা শির মানুষ ভালোবাসে। কিন্তু অনেক মানুষের ভিড় তাদের অপছন্দ। শান্তির পায়রাদের মতোই সুশীলভাবে তারা অন্যদের ঝগড়া-বিবাদে মধ্যস্থতা ও মীমাংসার জন্য এগিয়ে যায়।

ভালোই কাটবে, তবে ভুল বোঝাবুঝির জেরে আপনি অতিষ্ঠ হয়ে পড়বেন। শুধু পারিবারিক অশান্তিই নয়, কর্মক্ষেত্রেও আপনি জেরবার হয়ে যাবেন। যতটা পারবেন নিজেকে স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করুন। নিজেকে চাঙ্গা রাখতে প্রতিদিন যোগা করুন। ক্লান্তি দূর করতে পরিবারকে নিয়ে কোথাও ঘুরে আসতে পারেন। বছরের মাঝামাঝি সময়ে আপনার ভাগ্য ফিরতে পারে। কাজের জায়গায় আপনার সুখ্যাতি হবে। প্রোমোশন পেতে পারেন। বিভিন্ন দিক থেকে অর্থ উপার্জন করার সুযোগ রয়েছে। খুব বেশি পরিমানে বিনিয়োগ করবেন না। প্রেমিক ও প্রেমিকাদের জন্য নতুন বছর খুব শুভ। বছরের শুরুতে বৈবাহিক জীবন খুব ভাল কাটবে। শরীর ও মন, দুইই ভালো থাকবে। বিদেশে যাওয়ার প্ল্যান করতে পারেন। রাহুর যোগে আপনার জীবনে অনেক পরিবর্তন আসতে পারে।

কনিষ্ঠ ভ্রাতা-ভগ্নিদের সঙ্গে কোনো কোনো ব্যাপারে মতানৈক্য দেখা দিতে পারে। মাতৃ স্বাস্থ্য খুব একটা ভালো যাবে না। বিদ্যার্থীদের জন্য বছরটি শুভ সম্ভাবনাময়। পড়াশোনার প্রতি আগ্রহ বৃদ্ধি পাবে এবং এবছরে অনুষ্ঠিত পরীক্ষায় আশানুরূপ সাফল্য লাভ করতে পারেন। রাজনীতিকদের জন্য বছরটি শুভ সম্ভাবনাময়। শুভ গ্রহ বৃহস্পতির প্রভাবে জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি পাবে এবং কাঙ্ক্ষিত সাফল্য লাভসহ জহতে পারে।

বৃশ্চিক রাশি :

বৃশ্চিক জাতকেরা শারীরিক দিক থেকে শক্তিশালী। তাদের শারীরিক বৈশিষ্ট্যগুলো লক্ষণীয়ভাবে দৃঢ়, তীক্ষ্ণ ও পরিষ্কার। তাদের নাক খাড়া, কখনো কখনো টিয়ার ঠোঁটের মতো। সাধারণত তাদের গায়ের রং হয় মলিন, যেন প্রায় স্বচ্ছ এবং তাদের ভ্রূ মোটা। বৃশ্চিকের উপস্থিতিতে আপনি মৃদুকোলাহল আর তীব্র গতিময় প্রাণ শক্তির আভাস পাবেন। আর সেটাই আপনার কাছে তার পরিচয় তুলে ধরবে।

অনেকগুলি গ্রহ এ বছর আপনার রাশির সঙ্গে যুক্ত হবে, যা আপনার জন্য ভালো ও শুভ হবেই। বৃহস্পতি আপনার সহায় থাকবে। সন্তানদের সঙ্গে সময় কাটাতে পারবেন। যত বেশি পরিশ্রম করবেন, তত বেশি লাভবান হবেন। কাজের জায়গায় এই নিয়ম মেনেই কাজ করুন, আর তার ফল হাতেনাতে পান। কিছু সমস্যা আসতে পারে, সেগুলি সমাধান করে বুদ্ধিমত্তার পরিচয় দেবেন। নতুন বছরে লোন নিতে পারেন। বিবাহিত জীবনে সমস্যা দেখা দিতে পারে। কাছের সম্পর্কগুলিতে সময় দিন। দেখবেন সমস্যা কেটে যাবে। শরীরের দিকে বিশেষ নজর দিন। ক্ষমতা অনুযায়ী কাজ করুন। পড়ুয়াদের ক্ষেত্রে সময়টা মোটামুটি যাবে। জুন মাসটি আপনার জীবনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হতে পারে।

স্থাবর-সম্পত্তি ক্রয়ের ব্যাপারে আলাপ-আলোচনা সফল হতে পারে। দাম্পত্য সম্পর্ক ভালো থাকবে। ব্যবসায়িক যোগাযোগ ফলপ্রসূ হতে পারে। সরকারি কর্মকর্তা অথবা বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সারা বছরই সতর্ক থাকতে হবে। নৈতিক চরিত্র স্খলনজনিত কোনো অপবাদের সম্মুখীন হতে পারেন। সুতরাং এ ব্যাপারে বছরের প্রথম থেকেই সতর্ক থাকলে ভালো করবেন। বিদ্যার্থীদেরকে পড়াশোনায় অধিকতর মনোযোগী হতে হবে। অন্যথায় পরীক্ষায় কাঙ্ক্ষিত ফল লাভ নাও হতে পারে। প্রণয় সংক্রান্ত ব্যাপারে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

ধনু রাশি :

ধনু রাশির জাতকেরা সাধারণত অস্থির প্রকৃতির। তারা এক জায়গায় স্থির হয়ে দাঁড়াতে বা বসতে ঘৃণাবোধ করে। যেকোনো পার্টিতে যান এবং সেখানে সবচেয়ে প্রাণবন্ত দলটিকে লক্ষ্য করুন। হাসিখুশি-আনন্দে আপ্লুত যে মানুষটি ওখানে বসে আছেন, তিনিই হবেন ধনু।

ধনুর জাতকদের রাশির এ বছর অনেকগুলি গ্রহের সমাবেশ রয়েছে। তাতে আপনার বিশেষ ক্ষতি কিছু হবে না। প্রিয়জন অথবা পরিবারের কাছের কেউ, আপনাকে ধোঁকা দিতে পারে। চট করে কাউকে বিশ্বাস করবেন না। আপনার সরল স্বভাব আর বিশ্বস্ত মানসিকতাকে কাজে লাগিয়ে অনেকেই আপনাকে ব্যবহার করতে পারে। কাজের জায়গায় নিজের কাজ নিয়ে খুশি হবেন না। হতাশা আর মানসিক অস্থিরতার ফলে আপনার আত্মবিশ্বাস একেবারে তলানিতে গিয়ে পড়বে। অর্থকরী দিকের নিয়ন্ত্রণ নিজের হাতে রাখুন। বিদেশে যাওয়ার সুযোগ রয়েছে। বছরের প্রথম ভাগ প্রেমিক-প্রেমিকাদের জন্য দারুন যাবে। রাস্তাঘাটে সাবধানে চলাফেরা করবেন। পায়ে চোট পেতে পারেন। বছরের দ্বিতীয় ভাগে আর্থিক অবনতি ও মানসিক সমস্যা দেখা দিতে পারে।

সন্তানের কোনো সাফল্য আনন্দদায়ক হতে পারে। নিঃসন্তান দম্পত্তিদের এ বছর সন্তান লাভের যোগ আছে। সপ্তমে শনি ও বৃহস্পতির দৃষ্টির ফলে যৌথ ও অংশিদারী ব্যবসায় খুব একটা প্রতিবন্ধকতা থাকবে না। তবে নতুন বিনিয়োগে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে।

মকর রাশি :

মকররা দায়িত্ব এবং কর্তব্যবোধ মেনে চলতে শিখেছে আর হতাশাকেও সহ্য করে থাকতে জানে। কিছু কিছু মকরের মধ্যে নিজের উচ্চাকাঙ্ক্ষা লুকিয়ে রাখার ব্যাপারে অসতর্কতা দেখা যেতে পারে। এদেরকে শীর্ষপদে অভিষিক্ত না করা হলে কাজ করার ব্যাপারে অস্বীকৃতি জানায়। তখন সে জেদি মকর হয়ে ওঠে। সে চায় যে, মইয়ের সবচেয়ে উপরের তাকটাতেই সে দাঁড়াবে! কেন না সেখানে দাঁড়ানোর যোগ্যতা কেবল তারই আছে।

জীবনে যা যা চেয়ে এসেছেন, বা স্বপ্ন দেখে এসেছেন, তা পূরণ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। পরিবারকে নিয়ে আপনি খুবই খুশি থাকবেন। আপনার প্রতিটি পদক্ষেপে পরিবারকে পাশে পাবেন। কিন্তু একটা সমস্যা থেকেই যাবে। আপনার অস্বাভাবিক আচরণে পরিবারের সদস্যরা ক্ষুব্ধ হবেন। বছরের মাঝের সময়টা খুব ভাল যাবে না। মাতৃস্থানীয় কারোর শরীর খারাপ হতে পারে। শনির প্রভাব থাকায় আর্থিক দিক থেকে ক্ষতি হতে পারে। অন্যদিকে কঠোর পরিশ্রমের ফল পাবেন এই বছরেই। সহকর্মীদের সাহায্য পেতে পারেন। বছরের মাঝে বিবাহের শুভ যোগ আছে।

মাতৃস্বাস্থ্য মোটামুটি ভালো যাবে। চতুর্থ স্থানে ইউরেনাসের অবস্থানের কারণে অপ্রত্যাশিত প্রাপ্তি যোগ আছে। প্রেম-রোমান্স প্রভৃতির জন্য বছরটি শুভ সম্ভাবনাময়। এ বছর গৃহে নতুন অতিথির আগমন তথা সন্তান লাভের যোগ আছে। ব্যক্তিগত জীবনে এ বছর একাধিকবার ভুল বোঝাবুঝির সম্মুখীন হতে পারেন। কারো কারো এ বছর কোনো দুরারোগ্য ব্যাধি দেখা দিতে পারে। পিতার শরীরস্বাস্থ্য নিয়েও উদ্বেগ দেখা দিতে পারে। রহস্যজনক কোনো সূত্র থেকে অর্থাগমের সম্ভাবনা আছে। এ বছর বিদেশ যাত্রার সম্ভাবনা আছে। ধর্ম-কর্মের প্রতি আগ্রহ বৃদ্ধি পাবে। জ্যেষ্ঠ ভ্রাতা-ভগ্নিদের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় থাকতে পারে।

কুম্ভ রাশি:

কুম্ভ রাশির জাতকদের জন্য ২০১৯ সালের রাশিফল অনুযায়ী আপনার সিদ্ধান্ত এ বছর উন্নতির ভিত্তিস্থাপন করবে। ধনার্জন বৃদ্ধির ওপর আপনার মুখ্য মনোযোগ থাকবে। কঠিন প্রচেষ্টা আপনাকে লাভবান করবে। আর্থিক অবস্থা সুদৃঢ় হবে। দূর ভ্রমণও এই বছর হতে পারে। । এই রাশির জাতকেরা অল্পেই হুজুগে হয়ে পড়েন। সাবধান হোন এখনই। বছরের মাঝে দুর্ঘটনায় পড়ার প্রবল সম্ভাবনা আছে। এমন কিছু আচরণ করবেন না, যাতে পরিবারের সদস্যরা ক্ষুব্ধ হোন। মানসিকতার দিক থেকে পজিটিভ থাকার চেষ্টা করুন। বছরের প্রথম দিকটা আপনার ভালোই কাটবে। কঠোর পরিশ্রম করলে তার ফল এবার পাবেন। প্রোমোশন মিলতে পারে। তবে বছরের শেষ দিকটা আপনাকে হতাস করবে। খুব কাছের কারোর থেকে প্রতারিত হতে পারেন।

আপনি বুদ্ধিমত্তাপূর্ণ এবং ফলদায়ক সিদ্ধান্ত নেবেন। যদি একটু খেয়াল রাখেন তো আপনার স্বাস্থ্যও এ বছর ভালো থাকবে এবং পুরনো রোগ থেকে মুক্তি আপনি পেতে পারেন। গুরুজনদের প্রশংসা পাবেন। বিবাহিত জীবনে স্নেহ এবং ভালোবাসা থাকবে। তবে, প্রথম দুই মাস একটু ঝুঁকিপূর্ণ থাকবে, কারণ কিছু ঝগড়া বা জীবনসঙ্গীর স্বাস্থ্য সমস্যা দেখা দিতে পারে। যারা প্রেম-সম্পর্কের মধ্যে আছেন তাদের একটু বেশি মনোযোগ দিতে হবে এবং তার সঙ্গে তাদের একে অপরকে ভালো করে বোঝার প্রয়োজন থাকবে। শিক্ষার্থীরা কঠিন পরিশ্রম করবে। সন্তানদের জন্য কিছু বিব্রতভাব থাকতে পারে তবে রাখবেন তাদের বাড়বাড়ন্তের জন্য একটু ভালোবাসার দরকার। সব মিলিয়ে, আপনার জন্য এটি একটি যথার্থ এবং প্রগতিশীল বছর থাকবে।

মীন রাশি :

মীনের স্বভাবে অন্যান্য রাশিগুলোর বৈশিষ্ট্যের মিশ্রণ থাকে। আর সেটা বহন করা একজন মীন জাতকের পক্ষে যথেষ্ট কঠিন হয়ে দাঁড়ায়। যত বেশি শৈল্পিক ও সৃষ্টিশীল পরিবেশ হবে, যত বেশি অবসর এবং দুর্বোধ্য পরিবেশ হবে, তত বেশি এমন স্থানে মীনকে খুঁজে পাওয়া যাবে।

গ্রহের হেরফেরে বছরের প্রথম দিকেই সমস্যার সম্মুখীন হতে পারেন। তবে বিপদে পরিবারকে পাশে পাবেন। বছরের দ্বিতীয় ভাগ থেকে আপনার সময় ভালো হবে। বৃহস্পতি ও মঙ্গলের যোগ থাকায় আপনার পক্ষেই সময় যাবে। টাকা-পয়সার অভাব হবে না। তবে আয় বুঝে ব্যয় করার মনোভাব আনুন। কর্মক্ষেত্রে কোনও সমস্যা নেই। আত্মবিশ্বাস ও পরিশ্রমের জেরে প্রোমোশন মিলতে পারে। বছরের শেষের দিকে আবার সমস্যা দেখা দিতে পারে। আর্থিক কারণে আপনি মানসিকভাবে ভেঙে পড়তে পারেন। বিবাহিতদের জীবন ভালোই কাটবে। পরকীয়া থেকে দূরে থাকুন। শরীর-স্বাস্থ্য মোটামুটি যাবে। হাওয়া বদলের জন্য কাছে-দূরে কোথাও ঘুরে আসতে পারেন।

ছোট ভাইবোনদের সঙ্গে সম্পর্ক ভালো থাকবে। মাতৃস্বাস্থ্য খুব একটা ভালো যাবে না। বিদ্যার্থীদের জন্য বছরটি খুব একটা অনুকূল নাও হতে পারে। কর্মসংস্থানের উদ্দেশে বিদেশযাত্রার প্রচেষ্টা ফলপ্রসূ হতে পারে। ধর্ম ও আধ্যাত্মিকতার প্রতি অনুরাগ বৃদ্ধি পেতে পারে। এ বছর রহস্যজনক কারণে ব্যয়াধিক্য দেখা দিতে পারে। ফেব্রুয়ারির পর থেকে নবম পতি মঙ্গলের নবমে অবস্থানের ফলে এ বছরটি ভাগ্যোন্নয়নে সহায়ক হতে পারে।

এনই

apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত