Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ৯ ফাল্গুন ১৪২৫
  • ||

লালমোহনে দুর্বৃত্তের আগুনে খালা-ভাগ্নির মৃত্যু

প্রকাশ:  ১৯ জানুয়ারি ২০১৯, ১৩:৩৭ | আপডেট : ১৯ জানুয়ারি ২০১৯, ১৪:০৮
ভোলা প্রতিনিধি
প্রিন্ট icon

ভোলার লালমোহন উপজেলায় দুর্বৃত্তের দেয়া আগুন পুড়ে খালা-ভাগ্নির মৃত্যু হয়েছে। এ সময় গৃহবধুর বড় বোন আংকুরা বেগমও অগ্নিদগ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়েছেন। তাকে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নিহতরা হলেন- সুরমা (২৫) ও তার বোনের মেয়ে খাদিজা (৮)।

শুক্রবার (১৮ জানুয়ারি) রাতে উপজেলার চরভূতা ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের খারাকান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থলে নিহতের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

সুরমার পরিবার জানায়, সুরমা তার স্বামীর সাথে বিরোধের কারণে গত ১০ দিন ধরে বড় বোন আংকুরা বেগমের বাড়িতে উঠে। ওই বাড়িতে শুক্রবার রাতে খাবার পর ঘুমিয়ে পড়ে তারা। রাতে ওই ঘরের পেছন দিক দিয়ে সিঁধ কেটে ঘরে প্রবেশ করে দুর্বৃত্তরা ঘুমন্ত অবস্থায় লেপ তোষকে আগুন ধরিয়ে দেয়। আগুনে সুরমা ও তার বোনের মেয়ে খাদিজার মৃত্যু হয়। তা বড় বোন আংকুরা এসময় অগ্নিদগ্ধ হয়।

এদেরকে উদ্ধারকারী একই বাড়ির যুবক রাকিব জানান, রাত অনুমান সাড়ে ১ টা থেকে সোয়া ১ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। তাদের আত্মচিৎকার শুনে ঘরে প্রবেশ করে আহতদের উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠানো হয়। কে এই ঘটনা ঘটিয়েছে তা জানা যায়নি।

নিহত সুরমার মেঝো বোন শাহিনুর ও ভাই মহিউদ্দিন জানান, সুরমার বাবার বাড়ি লালমোহন ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের পন্ডিত বাড়ি। ৬ মাস আগে বোরহানউদ্দিন উপজেলার দেউলা এলাকার রফিকের সাথে তার বিয়ে হয়। বিয়ের পর স্বামী রফিকের সাথে বনিবনা হচ্ছিল না। তাদের সাথে প্রায় ঝগড়া বিবাদ লেগে থাকতো। এ নিয়ে কয়েকবার বিচার সালিশও হয়েছে। গত ১০দিন আগে সুরমাকে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয় স্বামী রফিক। তার বড় বোন আংকুরার বাড়িতে উঠে। গত রাতে সেখানেই এ ঘটনা ঘটে।

লালমোহন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর খায়রুল কবীর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। এ ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতারে পুলিশ চেষ্টা চালাচ্ছে।

পিবিডি/পি.এস

ভোলা,দুর্বৃত্ত,আগুন,গৃহবধূ
apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত