Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • রবিবার, ২৪ মার্চ ২০১৯, ১০ চৈত্র ১৪২৫
  • ||

জবি ছাত্রলীগের অফিস সীলগালা করলো প্রশাসন

প্রকাশ:  ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২২:৪৪
জবি প্রতিনিধি
প্রিন্ট icon

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) শাখা ছাত্রলীগের ব্যাবহৃত বিশ্ববিদ্যালয়ের অবকাশ ভবনের ছাত্র সংসদের জন্য নির্ধারিত রুমটি সীলগালা করেছে প্রশাসন। এতে শাখা ছাত্রলীগের কোন নেতাকর্মী অফিস রুমটিতে প্রবেশ করতে পারছেনা।

রবিবার (১৭ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে অবকাশ ভবনের দ্বিতীয় তলায় অবস্থিত রুমটি সীলগালা করে দেওয়া হয়।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র সংসদের কোন কমিটি না থাকায় দীর্ঘদিন রুমটি অব্যবহৃত অবস্থায় ছিল। এরপর শাখা ছাত্রলীগের তরিকুল-রাসেল কমিটি পাওয়ার পর তারা এই ফাঁকা রুমটি দখল করে এতে দলীয় কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছিলেন।

তবে সম্প্রতি আধিপত্য বিস্তার কে কেন্দ্র করে ছাত্রলিগের দু’টি গ্রুপের ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। ফলশ্রুতিতে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ জবি শাখা ছাত্রলীগের এই কমিটি স্থগিত ও তদন্ত কমিটি গঠন করে। এরপর পরই জবি শাখা ছাত্রলিগের বর্তমান কমিটি স্থগীতের পরিবর্তে বাতিলের দাবীতে আন্দোলনে নামেন অন্যান্ত্য নেতা-কর্মীরা। এবং ছাত্রলীগের ব্যবহৃত এই অফিসটি সীলগালা করতে উপাচার্যের কাছে স্মারকলিপিও দেন তারা।

এদিকে কমিটি স্থগীতের পর থেকেই কমিটি বাতিলের দাবীতে মিছিল ও শোডাউন দিয়ে আসছে কমজিটির অন্যান্য নেতা-কর্মীরা। সর্বশেষ ১৩ ফেব্রুয়ারি স্থগিত কমিটির সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক ক্যাম্পাসে আসলে দুই গ্রুপের ক্যাম্পাসে অবস্থান ও মিছিল শোডাউনে উত্তপ্ত হয়ে উঠে ক্যাম্পাস। পরে কমিটি বাতিলের দাবীতে মিছিলকৃতরা ছাত্রলীগের অফিসটিতে তালা লাগিয়ে দেন। এসময় সভাপতি তরিকুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক শেখ জয়নুল আবেদীন রাসেল তাদের কিছু কর্মীসহ রুমটিতে অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন। ঘন্টা দু’য়েক অবরুদ্ধ থাকার পর বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও পুলিশের উপস্থিতে তারা ক্যাম্পাস ত্যাগ করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সহকারী প্রক্টর ড. মোস্তফা কামাল বলেন, এটি ছাত্রলীগের রুম নয়, তারা জাষ্ট ব্যাবহার করতো। সম্প্রতি রুম ব্যাবহার নিয়ে সমস্যা হয়েছে তাই সামগ্রিক বিষয় বিবেচনায় এটি বন্ধ রাখা হয়েছে। যখন দেখব সমস্যা নেই তখন খুলে দেওয়া হবে।

এ প্রসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিষ্টার প্রকৌশলী ওহিদুজ্জামান বলেন, আমি আসলে এখনো জানিনা কেন বা কখন রুমটি বন্ধ করা হয়েছে। আমি প্রক্টেরের সাথে কথা বলবো বিষয়টি নিয়ে। তখন হয়তো বিস্তারিত জানতে পারব।

বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মীজানুর রহমান বলেন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় আইন ২০০৫ অনুযায়ী ছাত্র সংসদ বলে বলে কিছু নাই। অবকাশ ভবনে দুটি কক্ষ আছে, এর মধ্যে একটি ছাত্রী কমন রুম, অপরটি ছাত্র কমন রুম। ছাত্ররা এই কক্ষটি ব্যবহার করতো।

তাহলে কেন কক্ষটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনা করে কক্ষটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে আবার খুলে দেওয়া হবে।

পিবিডি/ ইকা

জবি,ছাত্রলীগ
apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত