Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • বৃহস্পতিবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ৯ ফাল্গুন ১৪২৫
  • ||

দুঃখ প্রকাশের জন্য আত্মহত্যার পরামর্শ দেওয়া সাংবাদিককে খুঁজছেন রেল সচিব

প্রকাশ:  ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২১:২৪ | আপডেট : ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২১:২৭
পূর্বপশ্চিম ডেস্ক
প্রিন্ট icon

সংবাদ সংগ্রহকালে বেসরকারি একটি টেলিভিশন চ্যানেলের সাংবাদিককে আত্মহত্যার পরামর্শ দেওয়া রেলের সচিব মোফাজ্জল হোসেন দুঃখ প্রকাশ করার জন্য সেই সাংবাদিককে খুঁজছেন । তবে সময় টেলিভিশনের সাংবাদিক নাজমুস সালেহী জানিয়েছেন তার মোবাইল নাম্বার তো খোলাই আছে, সচিবের পক্ষ থেকে তার কাছে কোনো ফোন আসেনি।

এদিকে সচিব মোফাজ্জল হোসেন তার নিজ দফতরে সাংবাদিক নাজমুস সালেহীকে আত্মহত্যা করার পরামর্শ দেন। রিপোর্ট করার জন্য মৈত্রী ট্রেনের বাড়তি ভাড়া নেওয়ার কারণ জানতে চেয়েছিলেন সাংবাদিক।

কিন্তু রেল ভবনে এক কর্মকর্তা থেকে আরেক কর্মকর্তা ঘুরে শেষ পর্যন্ত রেল সচিবও মৈত্রী ট্রেনের বাড়তি ভাড়া নেওয়ার কারণ জানাতে পারেননি।

এসময় তাকে বিরক্ত হয়েই বলতে শোনা যায়, এখন আপনি আত্মহত্যা করেন। একটা স্টেটমেন্ট লিখে যান যে রেলের লোকেরা আমার সঙ্গে কথা বলতে চাচ্ছে না এই মর্মে ঘোষণা দিলাম যে, তারা কথা না বলার কারণে আমি আত্মহত্যা করলাম।

সচিবের এ বক্তব্য প্রচারের পর ব্যাপক সমালোচনার ঝড় ওঠে চারদিকে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সাধারণ মানুষ রেল সচিবের এমন বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা করতে থাকেন। এমনকি বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীর ‍মুখ্য সচিব নজিবুর রহমানের নজরে এনেছেন একজন সিনিয়র সম্পাদক ও সাংবাদিক নেতা। ঘটনা বিস্তারিত শুনেছেন মুখ্য সচিব।

সারাবাংলাকে রেলসচিব বলেন, বিষয়টি আসলে ভুল বোঝাবুঝি। ওই সাংবাদিকের কাছে দুঃখপ্রকাশ করব। কিন্তু তাকে আমি খুঁজে পাচ্ছি না।

এদিকে রেল ভবন সূত্র মৈত্রী ট্রেনের বাড়তি ভাড়া নেওয়া প্রসঙ্গে জানায়, রেলে ভগ্নাংশ ভাড়া রাউন্ড আপ করার নিয়ম। এটা ব্রিটিশ আমল থেকেই চলে আসছে। ২৫ টাকার কম হলে ২৫ বা ৫০ টাকা নির্ধারণ করা, ৫০ টাকার বেশি হলে তা ১০০ টাকা করা হয়। এরপরও অনেক সময় ভগ্নাংশ থেকে যায় যা ভ্যাটের কারণে হয়। কারণ, ভ্যাট রাউন্ড আপ করার উপায় নেই বলে জানান তিনি।

মৈত্রী এক্সপ্রেসের ভাড়া বাংলাদেশ-ভারত মিলে যৌথভাবে ডলারে নির্ধারণ করেছে। টাকার বিপরীতে ডলারের মূল্যমান ওঠানামা করে থাকে। এদিকে প্রতিদিন টিকেটের মূল্য নির্ধারণ সম্ভব নয়। বছরে একবার বা দু’বার এটা করা হয়ে থাকে।

এজন্যই রাউন্ড আপ করে ২৪৩২ টাকার ভাড়া ২৫০০ টাকা করা হয়েছে। অতিরিক্ত ভারতের সঙ্গে চুক্তি অনুযায়ী বণ্টন হয়ে সরকারি খাতে যায়।

রেলওয়ের সব ট্রেনের ভাড়া একইভাবে রাউন্ড আপ করা আছে। সবশেষ চালু হওয়া আন্তঃনগর সোনার বাংলার টিকেটও একইভাবে রাউন্ড আপ করে ১০০০ টাকা রাখা হয়েছে।

দুই বছর আগে মেট্রোরেলের প্রকল্প পরিচালক থেকে রেলওয়ের মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব হিসেবে যোগ দিয়েছিলেন মোফাজ্জল হোসেন। মেট্রোরেলে দায়িত্ব পালনকালে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রীও তাকে নানা কারণে অনেকবার ধমক দিয়েছেন।

একবছর আগে ভারপ্রাপ্ত সচিব থেকে রেলওয়ের সচিব পদে যোগ দেন তিনি। সূত্র: সারাবাংলা

পিবিডি/টিএইচ

সাংবাদিককে আত্মহত্যা
apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত