Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • রবিবার, ২৪ মার্চ ২০১৯, ১০ চৈত্র ১৪২৫
  • ||

ছাত্রলীগকে ‘সন্ত্রাসী’ দাবি করে শোভনের সাথে ছবি তুললেন না অরণি

প্রকাশ:  ১৩ মার্চ ২০১৯, ১৫:২৮ | আপডেট : ১৩ মার্চ ২০১৯, ১৫:৩৩
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রিন্ট icon

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনে সহ-সভাপতি (ভিপি) পদে পরাজিত ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মো. রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভনের সঙ্গে স্বতন্ত্র জোটের ভিপি পদপ্রার্থী অরণি সেমন্তি খানের কথোপকথনের একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

যেখানে কুশল বিনিময়ের জন্য হাত বাড়ান রেজওয়ানুল হক শোভন। বাড়ানো হাত সৌজন্যবশত না ফেরালেও তার সঙ্গে একত্রে ছবি তুলতে রাজি হননি অরণি।

মঙ্গলবার (১২ মার্চ) বিকালে টিএসসি অডিটেরিয়ামের মঞ্চে এ ঘটনাটি ঘটে। ডাকসুর নবনির্বাচিত ভিপি নুরুল হক নুরকে শুভেচ্ছা জানাতে মঙ্গলবার বিকেলে টিএসসির অডিটোরিয়ামে যান রেজওয়ানুল হক শোভন। সেখানে গিয়ে নুরের সঙ্গে কোলাকুলিও করেন তিনি। এ সময় নেতাকর্মীদের ভোটের ফল মেনে নেওয়ারও আহ্বান জানান ছাত্রলীগ সভাপতি। পরে মঞ্চের আরেক দিকে বসা অরণির উদ্দেশে হাত বাড়ান তিনি। শোভনের বাড়ানো হাত সৌজন্যবশত না ফেরালেও তার সঙ্গে একত্রে ছবি তুলতে রাজি হননি অরণি।

উল্টো অরণি বলেন, সন্ত্রাসীর সঙ্গে ছবি তুলি না। বিব্রত শোভন সঙ্গে সঙ্গেই চলে যান। অরণি ও শোভনের আলাপচারিতার এই ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে ভাইরাল হচ্ছে।

ভিডিওতে দেখা যায়- রোকেয়া হলে ভোট গ্রহণকালে হামলার জন্য সেমন্তির পাশ থেকে কেউ একজন শোভনকে দায়ী করে কথা বলছিলেন।

এসময় শোভনের পাশ থেকে একজন প্রস্তাব করে বলেন, ভাই, আপনাদের একটা ছবি...। কিন্তু অরণি তা প্রত্যাখ্যান করে বলেন, না, এই লোক কালকে রোকেয়া হলে বলছে- এদের ধরে মারো। এই লোকের সঙ্গে ছবি তুলবো না। সন্ত্রাসীদের সঙ্গে ছবি তুলি না।

বিব্রত শোভন সঙ্গে সঙ্গেই নেতাকর্মীদের নিয়ে মঞ্চ ছেড়ে চলে যান। পেছন থেকে অরণি তখনও বলতে থাকেন ‘সন্ত্রাসীদের সঙ্গে ছবি তুলি না।’ এ সময় অরণির সঙ্গীরা করতালি দিয়ে তার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানান।

এসময় ছাত্রলীগ সভাপতিকে চলে যেতে দেখা যায়।

উল্লেখ্য, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনে ভিপি নির্বাচিত হয়েছেন কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা নুরুল হক নুর। জিএস পদে জয়লাভ করেছেন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী। এছাড়া এজিএস নির্বাচিত হয়েছেন ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসাইন।

তবে সোমবার (১১ মার্চ) ডাকসু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। ব্যাপক অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগে ভোট বয়কট করে ছাত্রলীগের বাইরের সব সংগঠন। এদিন দুপুরে ক্যাম্পাসের শহিদুল্লা হলের সামনে ছাত্রলীগের হামলার শিকার হন প্রগতিশীল ছাত্র জোটের নেতা ও ডাকসুর ভিপি প্রার্থী লিটন নন্দী, রোকেয়া হলের সামনে হামলার শিকার হন কোটা আন্দোলনের নেতা ও ভিপি প্রার্থী নুরু, রোকেয়া হলের ভেতরে হামলার শিকার হন আরেক ভিপি প্রার্থী অরণি সেমন্তি খান।

পিবিডি/এআইএস

ডাকসু,অরণি সেমন্তি খান
apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত