Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • বুধবার, ২৩ জানুয়ারি ২০১৯, ১০ মাঘ ১৪২৫
  • ||

আ.লীগের সভা

মতিয়া চৌধুরীকে প্রত্যাহারের সুপারিশ

প্রকাশ:  ২০ মে ২০১৮, ০০:৫০ | আপডেট : ২০ মে ২০১৮, ০২:১৭
শেরপুর সংবাদদাতা
প্রিন্ট icon

শেরপুর-২ (নকলা-নালিতাবাড়ী) আসনের সাংসদ কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরীকে শেরপুর জেলা আওয়ামী লীগ ও নির্বাচনী এলাকা থেকে প্রত্যাহার করার জন্য কেন্দ্রের কাছে সুপারিশ করেছে শেরপুর জেলা আওয়ামী লীগ।

শনিবার বিকেলে জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় এই সুপারিশ করা হয়। সভায় নালিতাবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা এবং দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে শেরপুর-৩ (শ্রীবরদী-ঝিনাইগাতী) আসনের সাংসদ এ কে এম ফজলুল হকসহ পাঁচজনকে জেলা কমিটি থেকে বহিষ্কারের সুপারিশ করা হয়েছে।

শনিবার রাতে মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে মতিয়া চৌধুরী বলেন, ‘এ বিষয়ে আমার কোনো বক্তব্য নেই।’

শহরের চকবাজারে জেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত কার্যনির্বাহী কমিটির সভা শেষে শনিবার রাত আটটায় জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আবদুল্লাহ আল মামুন স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এসব সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়েছে।

জেলা কমিটি থেকে বহিষ্কারের সুপারিশ করা অপর চারজন হলেন জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি শামছুন্নাহার কামাল, নালিতাবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. জিয়াউল হক, সাধারণ সম্পাদক মো. ফজলুল হক ও নকলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম জিন্নাহ।

এ ছাড়া নকলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম জিন্নাহকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়ে তাঁর জায়গায় ১ নম্বর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ মো. বুরহান উদ্দিনকে ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও হুইপ মো. আতিউর রহমানের সভাপতিত্বে সভায় জেলা কার্যনির্বাহী পরিষদের ৭১ সদস্যের মধ্যে ৫২ জন উপস্থিত ছিলেন। এতে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক চন্দন কুমার পাল, সহসভাপতি মিনহাজ উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক আনোয়ারুল হাসান, কার্যনির্বাহী সদস্য বদিউজ্জামান বাদশা, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. রফিকুল ইসলাম, ঝিনাইগাতী উপজেলা কমিটির সভাপতি আব্দুল্লাহেল ওয়ারেজ নাইম, সাধারণ সম্পাদক আমিরুজ্জামান লেবু, শ্রীবরদী উপজেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোতাহারুল ইসলাম, শহর আ. লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ দত্ত প্রমুখ বক্তব্য দেন।

apps