Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • বৃহস্পতিবার, ২৪ জানুয়ারি ২০১৯, ১১ মাঘ ১৪২৫
  • ||

দড়িতে বেধে লন্ডন থেকে সিলেটে আনা হলো মাতাল বিমানযাত্রীকে

প্রকাশ:  ১২ জানুয়ারি ২০১৯, ২৩:৪৭ | আপডেট : ১৩ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০৯
পূর্বপশ্চিম ডেস্ক
প্রিন্ট icon
ছবি: সংগৃহীত

যুক্তরাজ্য প্রবাসী সিলেটের জিয়া নামের এক ব্যক্তিকে ফ্লাইটের ভেতর মাতলামি করার অভিযোগে দড়িতে বেধে লন্ডন থেকে সিলেট আনা হয়েছে। পরে তাকে পুলিশে সোপর্দ করা হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটে গত ৩০ ডিসেম্বর। ইতোমধ্যে এই ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে গেছে।

ভিডিওতে দেখা যায়- জিয়া বার বার সিট থেকে ওঠে দাঁড়িয়ে দৌড় দেবার চেষ্টা করেন। তখন তাকে পাশের আসনের যাত্রীসহ কেবিন ক্রুরা শান্ত করতে ব্যর্থ হন। তাকে জাপটে ধরে সিটে বসিয়ে রাখতে গিয়ে গলদঘর্ম হয়ে পড়েন তিনজন কেবিন ক্রু। এক পর্যায়ে ফ্লাইটের পেছন থেকে দড়ি এনে তাকে দুজন কেবিন ক্রু জোর করে বাধতে গিয়ে পড়ে যান। গায়ের জোরে তাকে ঘাড় চেপে সিটে বসিয়ে রাখার চেষ্টা করার সময় তিনি মাথা দিয়ে এক কেবিনক্রুর পেটে গুতো মারেন। এ সময় অশ্লীল ভাষায় বকাবকি করতে থাকেন।

এ প্রসঙ্গে বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ক্যাপ্টেন মোসাদ্দিক আহমেদ গণ মাধ্যমকে বলেন, এটা অত্যন্ত দুর্ভাগ্যজনক হলেও বিমান অত্যন্ত ধৈর্যের সঙ্গে সুকৌশলে ওই যাত্রীর মাতলামি সামাল দিয়েছে। এটা আমাদের জন্য একটা বিব্রতকর ঘটনা।

জানা গেছে, ওই ব্যক্তি লন্ডন থেকে সরাসরি সিলেটের ফ্লাইটে (বিজি-০০২) ওঠেই মাতলামি শুরু করেন। তিনি ইকনমি ক্লাসের যাত্রী হয়েও জোর করে বিজনেস ক্লাসে বসেন এবং সিভাস রিগ্যাল ব্র্যান্ডের হুইস্কি চান। কেবিন ক্রু তাকে এ ব্র্যান্ড নেই- জানানোর পরই তিনি বেশ উচ্চবাচ্য শুরু করেন। এক পর্যায়ে তাকে বিজনেস ক্লাস ছেড়ে ইকনোমি ক্লাসের (মিড রো) ৪২নং আসনে বসতে বাধ্য করা হয। এরপরই তিনি শুরু করেন অস্বাভাবিক আচরণ। কেবিন ক্রুদের সহ পাশের দুজন যাত্রীর সঙ্গেও তার বিতর্ক হয়। এক পর্যায়ে জিয়া আরও ভয়ংকর হয়ে পাশের এক যাত্রীকে ঘুষি মারেন এবং পরণের জামা ছিড়ে ফেলেন।

পরিস্থিতি সামালাতে জিয়াকে পুলিশে সোপর্দের ভয় দেখান ক্যাপ্টেন মাকসুদ। কিন্তু তাতেও স্বাভাবিক হননি তিনি। তখন ক্যাপ্টেন তাকে জার্মানিতে ফ্লাইট ল্যান্ড করে পুলিশে সোপর্দ করার মতো হুমকি দেন। এ এরপর জিয়া কিছুটা দমেন। কিন্তু আধা ঘন্টা পরই তিনি আবার নিজের সিট ছেড়ে সবাইকে গালিগালাজ করতে থাকেন। তখন কেবিন ক্রু সিনহা ও আফসান শাহীনসহ অন্যান্যরা ছুটে তাকে সামলানোর চেষ্টা করেন। এক পর্যায়ে তারা ব্যর্থ হয়ে তাকে দড়ি দিয়ে বাধতে বাধ্য হন। এমন মাতলামির দৃৃশ্য ধারণ মোবাইলে ধারণ করেছেন কমপক্ষে অর্ধ শতাধিকা যাত্রী। শুক্রবার সকালে প্রথম এই ভিডিও আপলোড করা হয় ফেসুবকসহ অন্যান্য সাামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

পিবিডি/রবিউল

যুক্তরাজ্য,সিলেট
apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত