Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ৭ ফাল্গুন ১৪২৫
  • ||

‘হলুদ পোশাক পরা তারুণ্যের মাঝে হুমায়ূনকে খুঁজে পাই’

প্রকাশ:  ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০১:৪৫ | আপডেট : ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০১:৫৩
রবিউল কমল
প্রিন্ট icon

পাঠকপ্রিয় লেখক মুহম্মদ জাফর ইকবাল, যার উপস্থিতি সবসময় মেলার জন্যে একটি বাড়তি আকর্ষণ। ভক্তদের ভাষায় জাফর ইকবাল স্যার ছাড়া মেলা অপূর্ণ থেকে যায়। আর সেজন্য তিনি মেলায় আসলেই ভক্তরা তাকে চারদিক থেকে ঘিরে রাখে, শুধুমাত্র একটি অটোগ্রাফের জন্য। ব্যাপারটা এমন যেন অটোগ্রাফ পেলেই জীবনে অনেক বড় কিছু পাওয়া হবে। তাই এসব অটোগ্রাফ শিকারিদের নিয়েই তিনি ব্যস্ত সময় কাটান বইমেলাতে। ব্যস্ততার মাঝেও বৃহস্পতিবার বইমেলায় এসে তিনি কথা বলেছেন পূর্বপশ্চিমের সঙ্গে।


পূর্বপশ্চিম: মেলায় এসে কেমন লাগছে?

মুহম্মদ জাফর ইকবাল: পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর মেলা হচ্ছে বইমেলা। তাই এখানে এসে অনেক ভালো লাগছে।

পূর্বপশ্চিম: এবার মেলার আয়োজনে কোনও পরিবর্তন চোখে পড়েছে কিনা?

মুহম্মদ জাফর ইকবাল: এবার মেলায় কিছুটা হলেও নতুনত্ব আছে। মেলার পরিবেশ আগের থেকে অনেক ভালো হয়েছে। সার্বিক অবস্থা দেখে আমি অনেক খুশি।

পূর্বপশ্চিম: মেলার পরিসর নিয়ে আপনার মন্তব্য কী?

মুহম্মদ জাফর ইকবাল: মেলার পরিসর এবার অনেক বাড়ানো হয়েছে। আসলে এটা একটি ভালো কাজ। সবাই ঘুরে দেখতে পারবে। অনেক সময় নিয়ে বই পছন্দের বই কিনতে পারবে। প্রকাশকদের উপরেও বাড়তি চাপ থাকবে না। মেলায় আগের মত মানুষের গিজগিজ বা ঠেলাঠুলি থাকবে না।

পূর্বপশ্চিম: আপনার চারপাশে অটোগ্রাফ শিকারিদের ভীড়। এটাকে কীভাবে সামলান?

মুহম্মদ জাফর ইকবাল: অটোগ্রাফ দিতে বা সবার সাথে ছবি তুলতে আমার অনেক ভালো লাগে। হয়তো তাদের কারণে আমি মেলা ঘুরতে পারি না। কিন্তু তারা সবাই যে কষ্ট করে দাঁড়িয়ে থেকে একটি অটোগ্রাফ নিয়ে হাসিমুখে চলে যায়। তাদের এই হাসিমুখ দেখলে আমার আর কোনো কষ্ট থাকে না। তখন নিজেকে লেখক হিসেবে স্বার্থক মনে হয়।

পূর্বপশ্চিম: এ বছর আপনার কয়টি বই আসছে?

মুহম্মদ জাফর ইকবাল: আমি নিশ্চিত নয়। তবে সম্ভবত সাতটি।

পূর্বপশ্চিম: হুমায়ূন আহমেদকে মিস করেন না?

মুহম্মদ জাফর ইকবাল: হুমায়ূন আহমেদের ব্যাক্তিসত্ত্বা মেলায় নেই কিন্তু তার লেখক সত্ত্বা সবসময় থাকবে। এ যুগের প্রজন্মকে তিনি বই পড়া শিখিয়ে ছিলেন। কম্পিউটার গেমস থেকে তাদের বইয়ের প্রতি আগ্রহী করেছিলেন, সেটি আর কোনো লেখক পারবে বলে আমার মনে হয় না। যখন দেখি একঝাক তরুণ-তরুণী হলুদ পোশাক পরে মেলায় ঘুরে বেড়ায় তখন আমি তাদের মাঝে হুমায়ূন আহমেদকে খুঁজে পাই। এভাবেই হুমায়ূন আহমেদ আমাদের মাঝে বেঁচে থাকবেন।

মুহম্মদ জাফর ইকবাল,হুমায়ূন আহমেদ
apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত