Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • শুক্রবার, ১৯ এপ্রিল ২০১৯, ৬ বৈশাখ ১৪২৬
  • ||

ক্রাইস্টচার্চে সন্ত্রাসী হামলা, শুক্রবার দুই মিনিট স্তব্ধ থাকবে নিউজিল্যান্ড

প্রকাশ:  ২০ মার্চ ২০১৯, ২০:৩০
আন্তর্জাতিক ডেস্ক
প্রিন্ট icon

ক্রাইস্টচার্চে দুই মসজিদে হামলার ঘটনায় স্তব্ধ গোটা নিউজিল্যান্ড। বিশেষ করে এ ঘটনায় দেশটির প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আর্ডার্ন মুসলিমদের পাশে দাঁড়িয়েছেন।

তিনি এ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় হতাহতদের স্মৃতি ধরে রাখতে আগামী শুক্রবার (২২ মার্চ) দুই মিনিটের নীরবতা পালনের ঘোষণা দিয়েছেন গোটা দেশ জুরে।

বুধবার (২০ মার্চ) এক সংবাদ সম্মেলনে দেশটির প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আর্ডার্ন ঘোষণা করেন, মসজিদে হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় হতাহতদের স্মৃতি রাখার জন্য আগামী শুক্রবার দুই মিনিটের নিউজিল্যান্ড স্তব্ধ থাকবে।

এদিকে, নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আর্ডার্ন বুধবার ক্রাইস্টচার্চে আসেন এ ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ততে সান্ত্বনা দিতে।

গত সপ্তাহে অস্ট্রেলীয় নাগরিক ব্রেনটন ট্যারেন্টের দুই মসজিদে সন্ত্রাসী হামলায় ৫০ জন প্রার্থনারত মুসল্লী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরও অর্ধশতাধিক আহত হয়েছেন। এ ঘটনার পরে দেশটির পার্লামেন্টের প্রথম অধিবেশনে কোরআন তেলওয়াত করে অধিবেশন শুরু করা হয়। অধিবেশনে বক্তব্যের শুরুতে তিনি মুসলিমদের উদ্দেশ্যে আসসালামু আলাইকুম বলে তার বক্তব্য শুরু করেন।

এ ছাড়া পার্লামেন্টে মুসলিমদের নামাজের ব্যবস্থা করেন। এতে তিনি মুসলিম সম্প্রদায়ের কাছে ব্যাপক প্রশংসিত করেন।

সংবাদ সম্মেলনে আর্ডার্ন বলেন, আমরা মুসলিম সম্প্রদায়ের সঙ্গে আছি, তাদের ভালোবাসি।

আর্ডার্ন আরও বলেন, আমাদের সবার সামনে চ্যালেঞ্জ হচ্ছে যে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। আমরা কখনও এমন পরিবেশের সঙ্গে আস্থা রাখতে পারি না, যেখানে সহিংস চরমপন্থী মতাদর্শ বিকাশ করতে পারে। এর অর্থ হচ্ছে বর্ণবাদ ও চরমপন্থা যেখানেই উত্থিত হবে সেখানে আমদের পৌঁছানো।

এ ছাড়ার নিউজল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী মুসলমান সম্প্রদায়ের সমর্থনে শুক্রবারের আজান দেশটির টিভি ও রেডিওতে প্রচারের ঘোষণা দেন।

গত শুক্রবার ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে নির্বিচারে গুলি করে অস্ট্রেলীয় খ্রিস্টান শ্বেতাঙ্গ জঙ্গি ব্রেন্টন ট্যারান্ট (২৮)। ওই হামলায় এই পর্যন্ত ৫০ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। ওই ঘটনায় ব্রেন্টন ট্যারান্টকে আটক করেছে পুলিশ। পুলিশ জানায়, ট্যারান্ট একাই ওই দুই মসজিদে হামলা চালায়।

টেস্ট খেলার জন্য ওই শহরেই ছিল বাংলাদেশের জাতীয় ক্রিকেট দল। ক্রাইস্টচার্চের আল নূর মসজিদে জুমার নামাজ আদায়ের কথা ছিল তামিম ও মুশফিকদের। পাঁচ মিনিট দেরি করে পৌঁছানোর কারণে তাঁরা সন্ত্রাসী ঘটনা থেকে বেঁচে যান। একজন নারী তাঁদের সাবধান করে দিলে তাঁরা দ্রুত হোটেলে ফিরে যান।

পিবিডি/জিএম

ক্রাইস্টচার্চ,দুই মসজিদে হামলা,নিউজিল্যান্ড
apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত