Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • বৃহস্পতিবার, ২৪ জানুয়ারি ২০১৯, ১১ মাঘ ১৪২৫
  • ||

যৌনা‌ঙ্গে লাঠি ঢুকিয়ে নির্যাতন

প্রকাশ:  ০১ জানুয়ারি ২০১৮, ২০:০১ | আপডেট : ০১ জানুয়ারি ২০১৮, ২০:০৩
শরীয়তপুর প্র‌তি‌নি‌ধি
প্রিন্ট icon
ফাইল ছবি

শরীয়তপু‌রের স‌খিপু‌রে সে‌ৗ‌দি প্রবাসী এক নারী‌কে পি‌টি‌য়ে ও যৌনা‌ঙ্গে অাঘাত ক‌রার অ‌ভি‌যোগ উ‌ঠে‌ছে। রোববার রাত ১০টার দি‌কে স‌খিপুর ছৈয়াল কা‌ন্দি গ্রা‌মে এ ঘটনা ঘ‌টে। এ ঘটনায় সে‌ৗ‌দি প্রবাসী ওই নারী‌কে সোমবার সকা‌লে অাহত অবস্থায় শরীয়তপুর সদর হাসপাতা‌লে ভ‌র্তি করা হ‌য়ে‌ছে।

স্থানীয় ও ওই নারীর প‌রিবার সূ‌ত্রে জানা যায়, দীর্ঘ দিন যাবৎ প্র‌তি‌বে‌শিদের সা‌থে জ‌মি সংক্রান্ত বি‌রোধ চল‌ছিল। ২৮ ডি‌সেম্বর বৃহস্প‌তিবার ওই নারী সৌ‌দি অা‌রব থে‌কে ছু‌টি‌তে গ্রা‌মের বা‌ড়ি‌তে অা‌সে। পূ‌র্বের শত্রুতার জের ধ‌রে ‌রোববার রা‌তে ওই নারীর বসত ঘ‌রে এ‌সে প্র‌তি‌বে‌শি না‌য়িম সরদারের ছে‌লে ম‌নির সরদার, নজরুল সরদারের ছে‌লে বুলু সরদার ও তার স্ত্রী ম‌নি বেগম মার‌পিট ক‌রে। এ সময় বুলু সরদা‌রের স্ত্রী ম‌নি বেগম ওই প্রবাসী নারীর যৌনা‌ঙ্গে লা‌ঠি দি‌য়ে অাঘাত ক‌রতে থাক‌লে ওই নারী জ্ঞান হা‌রি‌য়ে ফে‌লে। একপর্যা‌য়ে ওই প্রবাসী নারীর যৌনা‌ঙ্গে রক্তক্ষরন শুরু হ‌লে সোমবার সকা‌লে তা‌কে শরীয়তপুর সদর হাসপাতা‌লে ভ‌র্তি ক‌রে প‌রিবা‌রের সদস্যরা।

‌সৌদি অারব প্রবাসী ওই নারী কান্না জ‌ড়িত ক‌ন্ঠে পূর্বপ‌শ্চিম‌কে ব‌লেন, রা‌তে অা‌মি ঘ‌রে ব‌সে প‌রিবা‌রের সদস্য‌দের সা‌থে কথা বল‌ছিলাম। এসময় ম‌নির সরদার, রুলু সরদার ও তার স্ত্রী এ‌সে অামার না‌মে মি‌থ্যা অপবাদ দি‌য়ে মার‌পিট শুরু ক‌রে। এক পর্যা‌য়ে তারা অামার যৌনা‌ঙ্গে অাঘাত ক‌রে। ওরা অামার জীবনটা নষ্ট ক‌রে দিল। অামার পিতা গ‌রিব হওয়ায় ও‌দের সা‌থে অামরা ক্ষমতায় পা‌রি না। ও‌দের বিচার চাই।

এ ঘটনায় অ‌ভিযুক্ত‌দের সা‌থে যোগা‌যোগ করা হ‌লেও কেউকে পাওয়া যায়‌নি।

শরীয়তপুর সদর হাসপাতা‌লের চি‌কিৎসক খা‌দিজা খাতুন পূর্বপ‌শ্চিম‌কে ব‌লেন, হাসপাতা‌লে এক নারী যৌনা‌ঙ্গে ও চো‌খে অাঘাত অবস্থায় এসে ভ‌র্তি হ‌য়ে‌ছে। অামরা ত‌া‌কে প্রাথ‌মিক চি‌কিৎসা দি‌য়ে‌ছি। এখন কিছুটা শঙ্কা মুক্ত ওই নারী।

স‌খিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ও‌সি) এ‌কে.এম ম‌ঞ্জুলুর হক অাকন্দ পূর্বপ‌শ্চিম‌কে ব‌লেন, ঘটনা‌টি অা‌মি শু‌নে‌ছি। ত‌বে এখ‌নো কেউ থানায় এ‌সে অভি‌যোগ ক‌রে‌নি। অ‌ভি‌যোগ পে‌লে অাইনগত ব্যবস্থা নেয়া হ‌বে।

apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত