Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • শনিবার, ২৩ মার্চ ২০১৯, ৯ চৈত্র ১৪২৫
  • ||

শিক্ষক যখন নিষ্ঠুর অধম!

প্রকাশ:  ০৬ জানুয়ারি ২০১৮, ২১:১০
বাগেরহাট প্রতিনিধি
প্রিন্ট icon

বাগেরহাট চিতলমারীর খালিশপুরে প্রাইভেট না পড়ার জের ধরে দুই শিক্ষকের বেত্রাঘাতে সুদিপ্ত বিশ্বাস (১৪) নামের এক শিক্ষার্থী গুরুতর আহত হয়েছে। আহত ওই ছাত্রকে আজ বিকালে চিতলমারী উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঘটনার পর থেকে একটি প্রভাবশালী মহল বিষয়টি ধামাচাপা দিতে ওই শিক্ষার্থীর বাবা-মাকে হুমকি-ধামকি দিচ্ছে। সন্ধ্যায় হাসপাতালের গেটে দাঁড়িয়ে এমনটি জানিয়েছেন সুদিপ্তর বাবা সুশান্ত বিশ্বাস।

সুশান্ত বিশ্বাস আরও জানান, তার ছেলে সুদিপ্ত বিশ্বাস এস এস নিকেতন খালিশপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্র। সে এক সময় ওই স্কুলের সহকারি শিক্ষক রণজিৎ বিশ্বাসের কাছে গণিত প্রাইভেট পড়ত। কিন্তু শিক্ষক রণজিৎ বিশ্বাস প্রায়ই ভারতে যাতায়াত করার কারণে তার ছেলের রেজাল্ট খারাপ হয়। সেই কারণে ওই শিক্ষকের কাছে প্রাইভেট পড়ানো বন্ধ করে দেয়া হয়। ওই শিক্ষকের কাছে প্রাইভেট না পড়ার কারণে আজ দুপুরে স্কুলের প্রধান শিক্ষক অনাদি বিশ্বাস ও সহকারি শিক্ষক রণজিৎ বিশ্বাস জোড়া বেত দিয়ে তাকে বেদম প্রহার করে। একপর্যায়ে সুদিপ্ত অচেতন অবস্থায় ভ্যানে করে বাড়িতে আসলে তাকে সন্ধ্যায় চিতলমারী উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

চিতলমারী এস এস নিকেতন খালিশপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক অনাদি বিশ্বাস ও সহকারি শিক্ষক রণজিৎ বিশ্বাস জানান, সুদিপ্ত একটু বেয়াদপ টাইপের। সে স্কুলে এসে সিগারেট খায়। নিষেধ না শোনায় তাকে কটু কথা বলা হয়েছে। বেত্রাঘাতের কোন ঘটনা ঘটেনি।

চিতলমারী উপজেলা হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. গৌতম মন্ডল জানান, সুদিপ্ত বিশ্বাসকে বেদম বেত্রাঘাত করা হয়েছে। তার সুস্থ হতে বেশ কিছুদিন সময় লাগবে।

apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত