Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • বুধবার, ২০ মার্চ ২০১৯, ৬ চৈত্র ১৪২৫
  • ||

স্কুলে বেতন ও সেশন ফি বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ

প্রকাশ:  ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৫:৫২
নীলফামারী প্রতিনিধি
প্রিন্ট icon

সৈয়দপুর লায়ন্স স্কুল এন্ড কলেজে সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে অতিরিক্ত সেশন ফি ও মাসিক বেতনসহ অন্যান্য ফি বৃদ্ধির প্রতিবাদে রোববার (১৭ ফেব্রুয়ারি) অভিভাবকরা বিক্ষোভ করেছে। এ ঘটনার প্রতিকার চেয়ে অভিভাবকরা অভিযোগ দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম গোলাম কিবরিয়ার কাছে।

সকালে অভিভাবকরা তাদের দাবির সমর্থনে কলেজে প্রবেশ করতে চাইলে কর্তৃপক্ষ তাদের বাধা দেয়। এতে বিক্ষুব্ধ অভিভাবকরা কলেজের ফটকের সামনে ২ ঘন্টা অবস্থান কর্মসূচি পালন করে। পরে অভিভাবকরা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম গোলাম কিবরিয়ার সঙ্গে দেখা করে তাদের অভিযোগ জানান।

বিক্ষোভকারী একাধিক অভিভাবক অভিযোগ করে জানান, ২০১৯ সালে লায়ন্স স্কুল এন্ড কলেজে সরকারি নির্দেশনাকে অমান্য করে প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ নিজ খেয়াল খুশিমত বেতন, সেশন ও অন্যান্য ফি বৃদ্ধি করেছে। যা মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্ত পরিবারের পক্ষে এ ব্যয় বহন করা অত্যন্ত দুঃসাধ্য হয়ে পড়েছে। অনেক পরিবারের একাধিক সন্তান ওই প্রতিষ্ঠানে অধ্যয়ন করেন। ফলে বাড়তি ব্যয়ের যোগান দিতে গিয়ে ঋণের জালে আটকা পড়তে বাধ্য হচ্ছে। এ ঘটনার প্রতিকার চেয়ে অভিভাবকরা গতকাল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম গোলাম কিবরিয়ার কাছে অভিযোগ দিয়েছে। এর আগে শনিবার অভিভাবকরা অধ্যক্ষকে স্মারকলিপি দিতে গেলে পুলিশ দিয়ে গ্রেফতারের ভয় দেখিয়ে তাড়িয়ে দেওয়া হয়।

বিক্ষুব্ধ অভিভাবকরা অভিযোগে জানান, স্কুলের বেতন, সেশন ও অন্যান্য ফির ব্যয়ভার বহন করতে রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছেন তারা। এ অবস্থায় ফি সহনীয় পর্যায়ে নির্ধারণ করতে কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করা হয়েছে। সৈয়দপুর লায়ন্স স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ নজরুল ইসলাম খান কিশোর মুঠোফোনে জানান, আমি ঢাকায় আছি, তবে বিষয়টি শুনেছি।

জানতে চাইলে সৈয়দপুর লায়ন্স স্কুল এন্ড কলেজ পরিচালনা কমিটির চেয়ারম্যান লায়ন নজরুল ইসলাম অভিভাবকদের প্রতিবাদ জানানোর সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন শিক্ষক বেতন ও অবকাঠামোর উন্নয়নের প্রয়োজনে প্রতি বছর বিভিন্ন ফি বাড়ানো হয়। তারপরও অভিভাবকদের অভিযোগ তিন দিনের মধ্যে সমাধান করার আশ্বাস দেওয়া হয়েছে। তবে অভিভাবকদের উচ্ছৃঙখল আচরণের বিষয়ে তাদের সঙ্গে বাকবিতণ্ডা হয়েছে মাত্র। সৈয়দপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এসএম গোলাম কিবরিয়া অভিভাবকদের মৌখিক অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেন।

পিবিডি/আর-এইচ

apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত