• শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০
  • ||

‘দীনেশ-রবীন্দ্র পত্র’সম্মাননা পদক পেলেন বঙ্গবন্ধু গবেষক মিল্টন বিশ্বাস

প্রকাশ:  ২৯ নভেম্বর ২০২৩, ০০:১৫
নিজস্ব প্রতিবেদক

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের আচার্য দীনেশচন্দ্র সেন রিসার্চ সোসাইটি প্রবর্তিত ‘দীনেশ-রবীন্দ্র পত্র’ সম্মাননা পদক-২০২৩ পেয়েছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মিল্টন বিশ্বাস। বঙ্গবন্ধু গবেষণায় গুরুত্বপূর্ণ অবদানের জন্য তাঁকে এই সম্মাননা দেওয়া হয়।

সম্পর্কিত খবর

    গত ২৭ নভেম্বর (২০২৩) জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সাহিত্য-শিল্প বিষয়ক ষষ্ঠ পর্বে ‘মৈমনসিংহ গীতিকা’র শতবর্ষে আন্তর্জাতিক সেমিনারে এ সম্মাননা দেওয়া হয়৷ অধ্যাপক ড. মিল্টন বিশ্বাসের হাতে সম্মাননা পদক ও মানপত্র তুলে দেন ভারতের আচার্য দীনেশচন্দ্র সেন রিসার্চ সোসাইটির সাধারণ সম্পাদক ও আচার্য দীনেশচন্দ্র সেনের প্রপৌত্রী প্রফেসর দেবকন্যা সেন। এসময় মঞ্চে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা এবং আন্তর্জাতিক সেমিনারের অন্যতম আলোচক ঢাকাস্থ ইন্দিরা গান্ধী কালচারাল সেন্টারের পরিচালক মৃন্ময় চক্রবর্তী।

    সম্মাননা স্মারকে বলা হয়, অধ্যাপক ড. মিল্টন বিশ্বাস বঙ্গবন্ধু গবেষক এবং কবি, প্রাবন্ধিক ও কলামিস্ট। সাহিত্য-সমালোচক হিসেবেও খ্যাত৷ আপনার গবেষণার বিষয় নির্বাচনে নতুনত্ব আছে এবং গবেষণা ও সৃজনশীল কাজের মাধ্যমে আপনি বাংলা সাহিত্যকে সমৃদ্ধ করে চলেছেন। গবেষক হিসেবে আপনার নিষ্ঠা, দক্ষতা ও সততাকে বরণ করে ‘মৈমনসিংহ-গীতিকা’ প্রকাশের শতবর্ষ উদযাপনের শুভ লগ্নে ‘আচার্য দীনেশচন্দ্র সেন রিসার্চ সোসাইটি, ভারত’ এর পক্ষ থেকে ‘দীনেশ-রবীন্দ্র পত্র’ সম্মাননা ২০২৩ অর্পণ করা হলো।

    এর আগে ভারতের বিচারপতি সুধেন্দু মল্লিক, বিচারপতি চিত্ততোষ মুখার্জি, সুপ্রিয় ঠাকুর, বাংলাদেশের মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা, কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. সৌমিত্র শেখর ও সমাজকর্মী অরোমা দত্ত প্রমুখ এই পদক লাভ করেন।

    জানা গেছে, মিল্টন বিশ্বাস কলামিস্ট, প্রাবন্ধিক ও কবি। তিনি ইউজিসি পোস্ট ডক্টোরাল ফেলো হিসেবে ‘‘সাহিত্যে বঙ্গবন্ধু’’ শিরোনামে গবেষণা সম্পন্ন করেছেন। ‘জীবনানন্দ দাশ ও বুদ্ধদেব বসুর কাব্যচিন্তা’ শীর্ষক অভিসন্দর্ভের জন্য ১৯৯৯ সালে এমফিল এবং ‘তারাশঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছোটগল্পে নিম্নবর্গের মানুষ’ রচনার জন্য ২০০৭ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রি লাভ করেন। ২০০০ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগে অধ্যাপনার পর জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে বাংলা বিভাগের অধ্যাপক হিসেবে যোগদান করেন। তিনি ২২ বছর যাবৎ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপনায় নিয়োজিত। তিনি যুক্তরাষ্ট্র, ইউরোপসহ বহু দেশে সেমিনার ও কনফারেন্সে যোগ দিয়েছেন।

    মৌলিক ও সম্পাদনা মিলে মিল্টন বিশ্বাসের গ্রন্থের সংখ্যা ২৫। প্রবন্ধ ৪৭টি এবং ৪ হাজারের অধিক তাঁর লেখা কলাম রয়েছে। দেশের বিশিষ্ট কলামিস্ট হিসেবে তিনি পত্র-পত্রিকায় নিয়মিত কলাম লিখেন। বাংলাদেশ প্রগতিশীল কলামিস্ট ফোরামের তিনি সাধারণ সম্পাদক ও বাংলা একাডেমির জীবন সদস্য। তাঁর জন্ম পাবনা শহরে, ৮ ফেব্রুয়ারি।

    মিল্টন বিশ্বাস,দীনেশ রবিন্দ্র
    • সর্বশেষ
    • সর্বাধিক পঠিত
    close