• বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
  • ||

দেশ-জাতিই ক্ষমা করতে পারে, বিসিবি নয়

প্রকাশ:  ২০ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০২:০৯
এবিএম জাকিরুল হক টিটন

ভাইরাল হওয়া বিতর্কিত ফেসবুক পোস্টের বিষয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)’র কাছে নাকি ক্ষমা চেয়েছেন তরুণ পেসার তানজিম হাসান সাকিব! চাইতেই পারেন। কিন্তু প্রশ্ন তো এখানেই বিসিবি কি তাকে ক্ষমা করতে পারে? না, শুধুমাত্র দেশ-জাতিই তাকে ক্ষমা করতে পারে, বিসিবি নয়।

আমাদের জাতীয় দিবসসমূহের মধ্যে অন্যতম বিজয় দিবস। এ বিজয় অর্জনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে দেশবাসীকে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর সঙ্গে এক রক্তক্ষয়ী যুদ্ধের মুখোমুখি হতে হয়। ১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর আমরা দেশকে পুরোপুরি শত্রুমুক্ত করে বিজয় অর্জন করি। আমরা পাই হাজার বছরের কাঙ্ক্ষিত স্বাধীনতা, স্বাধীন মানচিত্র ও স্বাধীন পতাকা, জাতীয় সংগীত- এসবই বাঙালি জাতির অহংকার।

সেই বিজয় দিবস ও জাতীয় সংগীতের প্রতিও বিরূপ মনোভাব প্রকাশ করেছেন তানজিম সাকিব। তাই সে ক্ষমা চাইলো আর বিসিবি ক্ষমা করে দিলো তাতে তার সাত খুন মাফ হয়ে যাবে, বিষয়টি এমনটি নয়। বিসিবি কেন, রাষ্ট্রের কারোরই ক্ষমতা নেই দেশ এবং জাতির অহংকারে আঘাতকারী কাউকে ক্ষমা করার।

গায়ক নোবেলও জাতীয় সংগীতকে অসম্মান করেছিলো, আজ নোবেল কোথায়! সংগীতে অসম্ভব প্রতিভা থাকা সত্ত্বেও নোবেল হারিয়ে গেছে ইতিহাসের আস্তাকুঁড়ে। তানজিমও ক্রিকেটের নতুন প্রতিভা, দেশের সম্পদ! তাতে কি, যে নিজের দেশকেই সম্মান করে না, ধর্মের দোহাই দিয়ে দেশের মা-বোনকে অসম্মান করে, এমন ক্রিকেট প্রতিভার ব্যাট-বল ধুয়ে বিসিবি পানি খেতে পারে, তাতে আমাদের কিছু যায়-আসে না। তাকে দল থেকে বহিষ্কার করার দাবি জানাই।

কেননা প্রতিদিন বাংলার ঘরে ঘরে এমন প্রতিভা শত শত জন্ম নিচ্ছে। আমরা খুঁজি না, তাই পাই না। এমন বেয়াদব দাম্ভিক দেশদ্রোহী দুই-একটা প্রতিভাকে বিদায় দিয়ে দেশের স্বার্থে আরো অসংখ্য প্রতিভা সন্ধান করে সুস্থ-সুন্দরদের স্থান করে দেয়া আমাদের কর্তব্য।

সেই সাথে বলতে চাই- বাংলা আমার জীবনানন্দ, বাংলা প্রাণের সুর, আমি একবার দেখি, বার বার দেখি, দেখি বাংলার মুখ।

জয় বাংলা।

লেখক: রাজনীতিবিদ, সমাজকর্মী এবং সম্পাদক, পূর্বপশ্চিমবিডি নিউজ

বিসিবি,ক্ষমা,দেশ,জাতি
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close