Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • রবিবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ৫ ফাল্গুন ১৪২৫
  • ||

বলিউডে বায়োপিকের নতুন সংযোজন সানিয়া মির্জা

প্রকাশ:  ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১১:৩০
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রিন্ট icon

দেশের প্রথম এবং একমাত্র মহিলা গ্র্যান্ড স্ল্যাম বিজেতার জীবনী এবার চলচ্চিত্রায়িত হওয়ার অপেক্ষায়। মিলখা সিং-মহেন্দ্র সিং ধোনি-মেরি কম-গীতা ফোগতের পর বলিউডে বায়োপিকের হিড়িকে এবার নতুন সংযোজন সানিয়া মির্জা। সদ্য মা হয়েছেন ভারতের এই টেনিস সুন্দরী। পুত্র সন্তান ইজহানের সঙ্গে তাঁর বিশেষ মুহূর্ত ইতিমধ্যেই ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়। শুক্রবার সুপার মম সানিয়া অবশেষে অনুরাগীদের নিশ্চিত করলেন তাঁর বায়োপিকের বিষয়ে।

বর্তমানে মাতৃত্বকালীন ছুটিতে কোর্ট থেকে অনেকটাই দূরে এই হায়দরাবাদি। কোর্টে ফিরে আসার লড়াইয়ে আপাতত জিমে অনেকটাই সময় দিচ্ছেন দেশের একমাত্র গ্র্যান্ড স্লাম জয়ী মহিলা টেনিস প্লেয়ার। এরইমধ্যে অনুরাগীদের আশ্বস্ত করে সানিয়া জানান, খুব শীঘ্রই রুপোলি পর্দায় তাঁর বায়োপিক দেখতে পাবেন তাঁর সিনেপ্রেমী অনুরাগীরা। তবে বিষয়টি একেবারেই প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে বলে জানান তিনটি মিক্সড ডাবলস ও তিনটি ডাবলস গ্র্যান্ড স্ল্যামজয়ী বেগম মির্জা।

পরিচালক রনি স্ক্রিউভালার হাত ধরে সানিয়ার বায়োপিকের সঙ্গে পরিচিত হবেন দর্শকেরা। চুক্তি সম্পন্ন হয়ে গিয়েছে ইতিমধ্যেই। তবে ছবি নির্মাণের কাজ রয়েছে একেবারেই প্রাথমিক পর্যায়ে, জানান সানিয়া। ২০০৩ উইম্বলডন চ্যাম্পিয়নশিপের গার্ল’স ডাবলস জিতে শিরোনামে আসেন এই হায়দ্রাবাদি। এরপর টেনিস সার্কিটে অচিরেই নিজেকে দেশের সর্বকালের একনম্বর মহিলা প্লেয়ার হিসেবে প্রতিষ্ঠা করেন মির্জা।

২০০৬ অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে বাছাই পর্বে উন্নীত হন সানিয়া। প্রথম ভারতীয় মহিলা হিসেবে কোনও গ্র্যান্ড স্ল্যামের আসরে বাছাই হয়ে প্রবেশ করেন তিনি। তবে প্রথম গ্র্যান্ড স্ল্যামের স্বাদ পেতে ২০০৯ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয় তাঁকে। ওই বছরে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে মিক্সড ডাবলস খেতাব জিতে ইতিহাস গড়েন বছর তেইশের সানিয়া। এরপর ২০১২ ফ্রেঞ্চ ওপেন ও ২০১৪ ইউ এস ওপেনে মিক্সড ডাবলস খেতাব জতে নেন তিনি।

ছ’টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী সানিয়ার বাকি খেতাবগুলি আসে ডাবলস ইভেন্ট থেকে। ২০১৫ উইম্বলডন ও ইউ এস ওপেনের ডাবলস শিরোপা ছিনিয়ে নেন বছর ঊনত্রিশের সানিয়া। এরপর ২০১৬ অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে ডাবলস চ্যাম্পিয়ন হন তিনি। এরইমধ্যে ২০১০ পাক ক্রিকেটার শোয়েব মালিকের সঙ্গে সাতপাকে বাঁধা পড়েন সানিয়া মির্জা। ২০১০ গুগল সার্চ ইঞ্জিনের সমীক্ষা অনুযায়ী ভারতের ক্রীড়াব্যক্তিত্বদের মধ্যে সবার উপরে নাম ছিল তাঁর।

বর্ণময় কে ক্যারিয়ার সেইসঙ্গে ব্যক্তিগত জীবনের নানা টানাপোড়েন সবকিছুই ফুটে উঠবে রুপোলি পর্দায়। সবমলিয়ে ধোনি-মেরি কম কিংবা মিলখা সিংদের দলে যে নাম লেখাচ্ছেন সানিয়া, তা একপ্রকার নিশ্চিত। বিষয়টি একেবারেই প্রাথমিক পর্যায়ে থাকায় সানিয়ার চরিত্রে কে অভিনয় করবেন, তাও নিশ্চিত নয় এখনও। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে এব্যাপারে নিশ্চিত হবেন অনুরাগীরা, জানান সানিয়া।

/এস কে

apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত