• বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
  • ||

রাণীনগরে পাতিচাষী-বুনন কারিগরদের মাঝে ঋণ বিতরণ

প্রকাশ:  ২১ নভেম্বর ২০২৩, ১৪:৩৯
আব্দুর রউফ রিপন, নওগাঁ প্রতিনিধি:

'পাতি চাষে সুরক্ষিত পরিবেশ, গড়বো মোরা স্বাস্থ্যকর বাংলাদেশ' এই প্রতিপাদ্য বিষয়কে সামনে রেখে নওগাঁর রাণীনগরে শতবছরের ঐতিহ্য পাতিচাষী ও মাদুর বুনন কারিগরদের মাঝে সোনালী ব্যাংকের পক্ষ থেকে ঋণ বিতরণ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে উপজেলার সোনালী ব্যাংক টি.টি.ডি.সি শাখা প্রাঙ্গনে ঋণ বিতরণ উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানের আয়োজন করে সোনালী ব্যাংক পিএলসি নওগাঁ অঞ্চল। অনুষ্ঠানে সোনালী ব্যাংক নওগাঁ, রাণীনগর, টিটিডিসি, আত্রাই, ত্রিমোহনী ও আবাদপুকুর শাখার মাধ্যমে ৫৭জন পাতিচাষী ও মাদুর বুনন কারিগরদের মাঝে ২৮লাখ ৫০হাজার টাকার ঋণের চেক বিতরণ করা হয়।

সোনালী ব্যাংক প্রিন্সিপাল অফিস নওগাঁর ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার মো. ওলিউজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ঋণ বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা উম্মে তাবাসসুম। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সোনালী ব্যাংক প্রিন্সিপাল অফিস নওগাঁর এ্যাসিষ্ট্যান্ট জেনারেল ম্যানেজার মো. আহসান রেজা, প্রিন্সিপাল অফিসার মাহমুদুল হাসান, সোনালী ব্যাংক নওগাঁ শাখার ম্যানেজার আজমল হোসেন, রাণীনগর শাখার ম্যানেজার এবিএম আ: হাকিম, টিটিডিসি শাখার ম্যানেজার মামুনুর রশীদ তালুকদার, আবাদপুকুর হাট শাখার ম্যানেজার সাকিনুজ্জামান, ত্রিমোহনী শাখার ম্যানেজার জাহাঙ্গীর আলম ও আত্রাই শাখার ম্যানেজার নূরনবী মিলনসহ ব্যাংকের অন্যান্য কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।

এসময় সম্প্রতি ছড়িয়ে পড়া পরিবেশ ও স্বাস্থ্যের জন্য হুমকি প্লাষ্টিকের মাদুর ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকার এবং পরিবেশ বান্ধব প্রাকৃতিক ভাবে উৎপাদিত পাতির তৈরি শতবছরের ঐতিহ্য মাদুর ব্যবহার করার প্রতি আহ্বান জানানো হয়। বর্তমানে এই পাতিকে বাংলাদেশ ব্যাংকের একটি কৃষি পণ্য হিসেবে তালিকাভুক্ত হয়েছে। তাই এই পাতির চাষ বৃদ্ধির মাধ্যমে মাদুর তৈরি করে স্থানীয় প্রয়োজন মিটিয়ে বিদেশেও রপ্তানিতে সরকারের সকল প্রকারের সহযোগিতা আগামীতেও বৃদ্ধি করা হবে বলে অনুষ্ঠানে জানানো হয়।

কৃষক

সারাদেশ

অনুসন্ধান করুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close