Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • শুক্রবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১০ ফাল্গুন ১৪২৫
  • ||

ডাক্তারের অবহেলায় মা ও নবজাতকের মৃত্যু

প্রকাশ:  ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ২০:৫৫
মৌলভীবাজার প্রতিনিধি
প্রিন্ট icon

মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের অবহেলায় সুলতানা আক্তার (২১) নামে এক প্রসূতি ও নবজাতক শিশুর মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বৃহস্পতিবার (৬ ডিসেম্বর) দুপুরে উপজেলার সেন্ট্রাল জেনারেল হাসপাতালে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত প্রসূতি সুলতানা আক্তার উপজেলার সাগরনাল ইউনিয়নের রানীমুরা গ্রামের বাসিন্দা রাজা মিয়ার স্ত্রী।

রাজা মিয়া অভিযোগ করে বলেন, সুলতানার প্রসব ব্যথা ও শ্বাসকষ্ট শুরু হলে বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টায় সেন্ট্রাল হাসপাতালে নিয়ে আসি। হাসপাতালের ডাক্তার রোগী দেখে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে বলেন রোগীর অবস্থা ভালো, নরমাল ডেলিভারি হবে। পরে রোগীকে ডেলিভারি রুমে নিয়ে অক্সিজেন লাগিয়ে রাখা হয়। সেই সঙ্গে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ হাসপাতালের সাদা প্যাডে আমার স্বাক্ষর নেন। সেখানে কী লিখেছেন তা আমাকে দেখাননি।

তিনি আরও বলেন, দুপুর ১২টায় ডাক্তার জানান মৃত বাচ্চা হয়েছে তবে মায়ের অবস্থা ভালো। কিছুক্ষণ পর বলেন মায়ের অবস্থা ভালো নয়। আপনারা সিলেট নিয়ে যান। কিন্তু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ কোনো অ্যাম্বুলেন্স দিতে পারেনি। দুপুর ১টায় তারা জানায় সুলতানা মারা গেছে। অথচ এ সময়ের মধ্যে আমাদেরকে তাকে দেখতে দেয়া হয়নি।

এই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের অবহেলায় ইতিপূর্বে আরও এক নবজাতক মারা যাওয়ার অভিযোগ আছে।

এ বিষয়ে সেন্ট্রাল জেনারেল হাসপাতালের চেয়ারম্যান জহির উদ্দিন শামীম ও কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. সমির চন্দ্র পাল বলেন, প্রসূতির অবস্থা ভালো ছিল না। প্রচণ্ড শ্বাসকষ্ট ছিল। দুপুর ১২টায় নরমালে মৃত বাচ্চা প্রসব হয়। এর এক ঘণ্টা পর প্রসূতিও মারা যায়।

অবস্থা ভালো না হলে রোগী রাখেন কেন এবং সাদা কাগজে স্বাক্ষর নিয়েছেন কেন? এমন প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেননি তারা।

এ বিষয়ে জুড়ি থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, আমার কাছে কেউ অভিযোগ নিয়ে আসেনি, অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

পিবিডি/সাগর

মৌলভীবাজার
apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত