Most important heading here

Less important heading here

Some additional information here

Emphasized text
  • বুধবার, ২৩ জানুয়ারি ২০১৯, ১০ মাঘ ১৪২৫
  • ||

খায়রুল্লাহ বালিকা বিদ্যালয়ে শিক্ষক সংকট, পাঠদানে ব্যাহত

প্রকাশ:  ১২ জানুয়ারি ২০১৯, ১১:০৪ | আপডেট : ১২ জানুয়ারি ২০১৯, ১১:০৯
গফরগাঁও প্রতিনিধি
প্রিন্ট icon

ময়মনসিংহের গফরগাঁও পৌরশহরের মেয়েদের একমাত্র স্কুল খায়রুল্লাহ সরকারি উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ে শিক্ষক সংকট থাকার কারণে পাঠদান ব্যাহত হচ্ছে।

এ বিদ্যালয়ে ৫টি শ্রেণির ১০টি শাখার ১২টি শ্রেণিকক্ষে মোট শিক্ষার্থী প্রায় আট’শ । তাদের লেখাপড়া করানোর জন্য সরকারি বিধিমালা ( অর্গানোগাম) অনুযায়ী ২৬ জন শিক্ষক থাকার কথা, কিন্ত সেখানে পদ সৃষ্টি রয়েছে ১৬ টির। কিন্ত এর মধ্যেও ৫টি পদ শূন্য রয়েছে। বাংলা, কৃষি বিজ্ঞান ও কম্পিউটার বিষয়ে কোন শিক্ষক নেই। খায়রুরুল্রাহ সরকারি উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়টিতে অর্গানোগ্রাম অনুযায়ী পদ সৃষ্টি না করায় এবং পদ শূন্য থাকায় বিঘ্নিত হচ্ছে বিদ্যালয়ের পাঠদান । কোনো রকম জোড়াতালি দিয়ে চলছে এ বিদ্যালয়ে লেখাপড়া।

ঐতিহ্যবাহী এ বিদ্যালয়টি ১৯৪১ সালে প্রতিষ্ঠার পর ১৯৮৫ সালে জাতীয়করণ করা হয় । কিন্ত সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অর্গানোগ্রাম অনুযায়ী এ বিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মচারীর পদ সৃষ্টি করা হয়নি । বিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, অর্গানোগ্রাম অনুযায়ী এ সরকারি হাইস্কুলে শিক্ষক পদের সংখ্যা ২৬টি হলেও বর্তমানে পদ রয়েছে ১৬টি। কর্মচারীর ৭টি পদের মধ্যে রয়েছে ৬টি। একাডেমিকের ১০টি এবং কর্মচারীর ১টি পদ সৃষ্টি করা হয়নি। ৩৪ বছরেও বাড়েনি একটি পদ ।

এদিকে বিদ্যালয়ে সৃষ্ট শিক্ষক পদের মধ্যে প্রধান শিক্ষকসহ ৫ টি শিক্ষক পদ ও একটি কর্মচারী পদ বর্তমানে শূন্য রয়েছে । বিদ্যালয়টিতে ১০টি শাখার প্রায় আট’শ ছাত্রীকে পাঠদানের জন্য বাংলা, কৃষি বিজ্ঞান বিষয়ের কোন শিক্ষক নেই । কম্পিউটার শিক্ষকের কোন পদ না থাকায় এ বিদ্যালয়ের ছাত্রীরা আধুনিক তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ে জ্ঞার্নাজন থেকে অনেক পিছিয়ে । ধর্মীয় শিক্ষক দিয়ে বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের আইসিটি পাঠদান করানো হয় । বিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত ছয়টি শাখা আবার নবম ও দশম শ্রেণিতে বিজ্ঞান এবং মানবিক বিভাগের আলাদা শাখা রয়েছে ।

মোট ১২টি শ্রেণিকক্ষ হলেও প্রধান শিক্ষক ছাড়া বিদ্যালয়টিতে শিক্ষক রয়েছেন ১০ জন । স্বাভাবিক ভাবেই দুইটি শ্রেণিকক্ষে স্কুল চলাকালীন সময়ে কোন ক্লাস নেওয়া সম্ভব হয় না । কোন শিক্ষক ছুটিতে বা প্রশিক্ষণে থাকলে আরও সমস্যায় পড়তে হয় । এ সব কারণে স্কুলে ছাত্রীদের উপস্থিতির হার খুবই কম । অধিকাংশ ছাত্রী এ স্কুলকে কেন্দ্র করে স্কুলের আশেপাশে ব্যাঙের ছাতার মত গজিয়ে উঠা কোচিং সেন্টারগুলোতে লেখাপড়ায় অভ্যস্ত হয়ে পড়েছে । বিদ্যালয়ের অভিভাবকরা জানান সুষ্ঠ পাঠদান এবং সৃজনশীল পদ্ধতি ও আধুনিক তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ে ছাত্রীদের পাঠদানের জন্য অর্গানোগ্রাম অনুযায়ী এ বিদ্যালয়ে পদ সৃষ্টি ও জরুরী ভিত্তিতে শূন্য পদ পূরণ করা প্রয়োজন।

এ ব্যাপারে খায়রুল্লাহ সরকারি উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক একেএম মফিজুল হক বলেন, শিক্ষক স্বল্পতার কারণে পাঠদান সুষ্ঠভাবে পরিচালন করা সম্ভব হচ্ছে না।

ময়মনসিংহ জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ রফিকুল ইসলাম জানান, দীর্ঘদিন নতুন নিয়োগ না থাকায় শুধু এ স্কুল নয় অনেক সরকারি হাইস্কুলে শিক্ষক সংকট আছে, পিএসসির মাধ্যমে নতুন শিক্ষক নিয়োগের প্রক্রিয়া চলছে।

পিবিডি/পি.এস

গফরগাঁও,শিক্ষক,সংকট,পাঠদান ব্যাহত
apps
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত